ক্যাটেগরিঃ ব্যক্তিত্ব

জাতীয় অধ্যাপক, শিক্ষাবিদ, প্রাবন্ধিক ও অনুবাদক কবীর চৌধুরী আর নেই, তিনি এখন দূরে কোথাও…

বিজয়ের ৪০ তম বর্ষে, বিজয়ের মাস ডিসেম্বরে এক শোকের হাওয়া কাঁপিয়ে দিয়ে গেল জাতিকে। চলে গেলেন এই বিপদগ্রস্ত জাতির একজন দিশারী।

কবীর চৌধুরীর মৃত্যুতে তার যে পরিচয় আমরা তুলে ধরছি তা নিছক প্রাতিষ্ঠানিক, কাগুজে। তিনি ছিলেন এই সামান্য পরিচয়েরও অনেক উর্ধ্বে। তিনি ছিলেন জাতির বিবেক, অভিভাবক এবং একজন সত্যিকারের ভাবদার্শনিক।

তিনি অকাল প্রয়াত নন, তবে তার বেঁচে থাকার প্রয়োজন ছিল আরো কিছুকাল। তিনি দেখে যেতে পারলেন না প্রিয় মাতৃভূমির ৪০তম বিজয় দিবসের রাঙা সূর্যোদয়। তিনি দেখে যেতে পারলেন না, যে অপশক্তির বিরুদ্ধে তিনি লড়াই করে গেছেন তাদের শেষ পরিণতি। তিনি দেখে যেতে পারলেন না ঘাতক সর্দার গোলাম আযমের গ্রেফতারের দৃশ্যটি। তার দীর্ঘ জীবনে এটা অপূর্ণতা হিসেবেই বিবেচিত হবে।

জাতির বিবেক সত্ত্বার এই আদর্শ প্রতিনিধি আজ আর নেই ঠিক, কিন্তু রয়ে গেল তার উত্তরসুরীরা। তিনি বেঁচে থাকবেন তাদের মাঝেই। তার উত্তরসুরীদের হাত দিয়েই নির্মিত হবে একটি গণতান্ত্রিক, অসাম্প্রদায়িক, প্রগতিশীল বাংলাদেশ; প্রকৃত মুক্ত স্বদেশ।

প্রয়াত কবীর চৌধুরীর শোকগ্রস্ত পরিবারের প্রতি রইলো সমবেদনা।