ক্যাটেগরিঃ ফিচার পোস্ট আর্কাইভ, রাজনীতি

 

আজ চরম ঔদ্ধত্য দেখিয়েছে জামাত-শিবিরের নেতাকর্মীরা। নয়াপল্টন ও পুরানা পল্টন এলাকায় মিছিলের নামে যে তাণ্ডব তারা আজ সৃষ্টি করলো তা এক অশনি সংকেত। কোন সন্দেহ নেই, সামনের দিনগুলোতে সুযোগ পেলেই তারা আরো হিংস্র হয়ে উঠবে, তান্ডব চালাবে বাংলার মাটিতে। তাদের প্রাণপ্রিয় নেতা ৭১ এর নরঘাতক গোলাম আজমের গ্রেফতারে এই দেশবিরোধী অশক্তি আজ এতোটাই উন্মত্ত যে রক্তপাত ঘটাতেও দ্বিধা করছে না। একজন পুলিশ অফিসারকে তারা আজ যেভাবে রক্তাক্ত করে অস্ত্র ছিনিয়ে নিল তাতে আমরা সংকিত।

খুনি ও স্বাধীনতা বিরোধী গোলাম আযমের পক্ষে মিছিল-সমাবেশ করাটাও অপরাধ। আমার মতে স্বাধীনতা বিরোধী এই ঘাতকের পক্ষে যেকোন ধরণের মিছিল-সমাবেশও স্বাধীনতা বিরোধী কাজ। এক কথায়, স্বাধীন বাংলাদেশে এটা স্পষ্টতই দেশদ্রোহীতা। এই অপতৎপরতাকে দমন করতে হবে, সরকারকে হতে হবে আরো কঠোর। এই চক্রের প্রতি কোন প্রকার সহানুভূতি দেখাবার প্রয়োজন বা সুযোগ আছে বলে আমি মনে করিনা।

আমি গোলাম আযমের পক্ষে সকল প্রকার সভাসমাবেশ নিষিদ্ধ করার দাবি জানাচ্ছি। সরকারের প্রতি অনুরোধ, বাংলাদেশের অস্তিত্বকে যারা অস্বীকার করার মত সাহস দেখাচ্ছে তাদেরকেও অস্বীকার করুণ। তাদের নিষিদ্ধ করুণ। আপনাদের অসংখ্য ব্যর্থতা থাকা সত্বেও এই ইস্যুতে তরুণ সমাজ আপনাদের সমর্থন দেবে।

***
ফিচার ছবি: বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডট কম/১২ জানুয়ারি ২০১২