ক্যাটেগরিঃ bdnews24

ঢাকা, মার্চ ১৯ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- নোবেল বিজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূসের অপসারণের বিষয়টিতে একটি সম্মানজনক সমাধান আশা করে যুক্তরাষ্ট্র।

শনিবার রাতে বিরোধী দলীয় নেতা খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাতের পর দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক যুক্তরাষ্ট্রের সহকারী পররাষ্ট্র মন্ত্রী রবার্ট ও ব্লেক সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, “নোবেল বিজয়ী ইউনূসের বিষয়ে বিরোধী দলীয় নেতা খালেদা জিয়ার সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। আমরা এ বিষয়ে উদ্বীগ্ন। আশা করি- পারস্পরিক আলোচনার মাধ্যমে সরকার বিষয়টির একটি সম্মানজনক সমাধান করবে।”

গ্রামীণ ব্যাংককে ক্ষুদ্র ঋণের একটি ‘গুরুত্বপূর্ণ’ প্রতিষ্ঠান অভিহিত করে ব্লেক বলেন, “এখানে অনেক মানুষের কর্মসংস্থান হয়েছে। বিশেষ করে নারীরা রয়েছেন। এ বিষয়ে খালেদা জিয়াও আমার সঙ্গে একমত।”

বিরোধী দলীয় নেতার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে সন্ধ্যা ৭টার দিকে তার গুলশানের কার্যালয়ে আসেন ব্লেক। প্রায় এক ঘণ্টা বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন তারা।

এর আগে শনিবার দুপুরে ঢাকা পৌঁছান যুক্তরাষ্ট্রের সহকারী পররাষ্ট্র মন্ত্রী।

তিনি বলেন, “যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়টিকে যথেষ্ট গুরুত্ব দেয়। আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার সরকারের কর্মকর্তাদের সঙ্গেও আলোচনা করবো।”

ড. ইউনূসের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান তুলে ধরে ব্লেক বলেন, “ইতিমধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের কয়েকজন সিনেটর ও কংগ্রেসম্যান নোবেল বিজয়ী ইউনূসের (গ্রামীণ ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের পদ থেকে) অপসারণের বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। যুক্তরাষ্ট্র মনে করে, ইউনূস একজন নোবেল বিজয়ী সম্মানিত ব্যক্তি। তার অপসারণে প্রক্রিয়া নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র সরকারও ইতিমধ্যে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।”

বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ওসমান ফারুক সাংবাদিকদের বলেন, “অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে খালেদা জিয়ার সঙ্গে আলোচনা করেছেন ব্লেক। দ্বি-পক্ষীয় ও প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্কোন্নয়নের বিষয়েও আলোচনা হয়েছে।”

অন্যদের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত জেমস এফ মরিয়ের্টি, খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য রিয়াজ রহমান, ওসমান ফারুক ও সাবিহ উদ্দিন আহমেদ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এসএম/জেকে/২০৫৬ ঘ.