ক্যাটেগরিঃ bdnews24

 

চট্টগ্রাম, জুন ১৮ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- কয়েকদিন বন্ধ থাকার পর আবারও টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করছে মিয়ানমারের রোহিঙ্গারা।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্যরা সোমবার দুপুর পর্যন্ত টেকনাফ সীমান্তবর্তী শাহ পরীর দ্বীপ এলাকা থেকে ১৩৭ জন রোহিঙ্গকে আটক করেছে। খাবারসহ বিভিন্ন সাহায্য দিয়ে তাদের ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে বলে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান বিজিবি ৪২ ব্যাটালিয়নের কমান্ডিং অফিসার লেফটেন্যান্ট কর্নেল জাহিদ হাসান।

মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশের মংডু জেলায় সম্প্রতি ইসলাম ধর্মাবলম্বী রোহিঙ্গা এবং বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী রাখাইনদের মধ্যে দাঙ্গা শুরু হয়। এরপর থেকেই সংখ্যালঘু রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে ঢোকার চেষ্টা শুরু করে। গত বৃহস্পতিবার পর্যন্ত কয়েকশ রোহিঙ্গকে আটক করে ফেরত পাঠানোর পর অনুপ্রবেশের চেষ্টা কমে আসে বলে বিজিবি কর্মকর্তারা জানান।

এরপর গত তিনদিনে নতুন করে অনুপ্রবেশের চেষ্টার খবর পাওয়া না গেলেও সোমবার সাতটি ইঞ্জিনচালিত বোটে করে ১৩৭ জন অনুপ্রবেশের চেষ্টা চালায়।

লেফটেন্যান্ট কর্নেল জাহিদ হাসান বলেন, “শাহ পরীর দ্বীপ এলাকা দিয়ে অনুপ্রবেশ চেষ্টাকালে রোববার গভীর রাত থেকে সোমবার বেলা পৌনে একটা পর্যন্ত ১৩৭ জনকে আটক করা হয়।”

আটকরা বিজিবি হেফাজতে রয়েছে জানিয়ে এই কর্মকর্তা বলেন, “তাদের ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। এছাড়া খাবারসহ বিভিন্ন মানবিক সাহায্য তাদের দেওয়া হচ্ছে।”

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর এই রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিতে বাংলাদেশের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

তবে দুই দশক ধরে প্রায় ৫ লাখ রোহিঙ্গা প্রবেশের পর তাদের নিয়ে সঙ্কটে থাকা বাংলাদেশ এই আহ্বান প্রত্যাখ্যান করেছে। নতুন করে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ ঠেকাতে কাজ করছে বিজিবিসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

এদিকে রোববার থেকে টেকনাফ স্থলবন্দর দিয়ে সীমিত আকারে সীমান্ত বাণিজ্য শুরু হয়েছে। এদিন মিয়ানমার থেকে মাছ বহনকারী একটি বোট স্থলবন্দরে আসে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এমসি/আরএ/জেকে/১৫৫৩ ঘ.