ক্যাটেগরিঃ bdnews24

 

ঢাকা, সেপ্টেম্বর ১৭ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- গ্রামীণফোনের মাধ্যমে পরিবেশিত বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সংবাদ সেবা নিয়ে সংসদে প্রশ্ন তুলেছেন এক সংসদ সদস্য।

বিএনপিদলীয় ওই সংসদ সদস্যের প্রশ্ন ছিল, ‘অনর্থক’ এসএমএসের মাধ্যমে সংবাদ পাঠিয়ে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম মোবাইল গ্রাহকদের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে কি না?

জাফরুল ইসলাম চৌধুরীর এই প্রশ্নের জবাবে টেলিযোগাযোগমন্ত্রী এই ধরনের অভিযোগ না পাওয়ার কথা জানান।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের পক্ষ থেকেও বলা হয়েছে, কোনো গ্রাহকের ইচ্ছার বিরুদ্ধে কোনো সংবাদ পাঠানোর সুযোগ নেই।

সংসদ বর্জন করে আসা বিএনপির সংসদ সদস্য জাফরুলের লিখিত প্রশ্নের উত্তরটি সোমবার সংসদ অধিবেশনে দেন নতুন টেলিযোগাযোগমন্ত্রী সাহারা খাতুন।

জাফরুলের প্রশ্ন ছিল- “ইহা সত্য কিনা যে, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম মোবাইল কোম্পানির সঙ্গে আঁতাত করে গ্রাহকের অনীহা সত্ত্বেও অনর্থক এসএমএস নিউজ পাঠাইয়া মোবাইল গ্রাহকদের বিরাট অঙ্কের টাকা লইতেছে ও হয়রানি করিতেছে; এবং তাহারা দৈনিক লাখ লাখ টাকা হাতাইয়া নিতেছে;

“উত্তর হ্যাঁ সূচক হইলে, মোবাইল গ্রাহকদের টাকা রক্ষার্থে এবং হয়রানি বন্ধে ওই কার্যক্রম বন্ধ করিয়া দিয়া গ্রাহকদের অনীহা সত্ত্বেও এসএমএস পাঠাইয়া টাকা নেওয়ার দায়ে তাহাদেরকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া হইবে কিনা; এবং না হইলে, কারণ কী?”

এই প্রশ্নে মন্ত্রীর উত্তর ছিল- “বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম মোবাইল কোম্পানির সঙ্গে আঁতাত করিয়া গ্রাহকদের বিরাট অঙ্কের টাকা লইতেছে ও হয়রানি করিতেছে; এবং তাহারা দৈনিক লাখ লাখ টাকা হাতাইয়া নিতেছে; এই ধরনের কোনো অভিযোগ পাওয়া যায় নাই।

“তবে এ ধরনের কোনো ঘটনা যেন না ঘটিতে পারে সেই বিষয়ে লক্ষ্য রাখা হইতেছে।”

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের একজন মুখপাত্র এই বিষয়ে বলেন, “এই মুহূর্তে শুধু গ্রামীণফোনের মাধ্যমে আমরা মোবাইল ফোন গ্রাহকদের কাছে সংবাদ সেবা দিয়ে থাকি। গ্রাহক স্বেচ্ছায় এ সেবা গ্রহণ করতে পারেন। সেজন্য গ্রামীণফোনের নির্দিষ্ট একটি নম্বরে গ্রাহককেই এসএমএস পাঠাতে হয়। এখানে তাই গ্রাহকের ইচ্ছার বিরুদ্ধে খবর পাঠানোর কোনো সুযোগ নেই।”

নিবন্ধন প্রক্রিয়াটি ব্যাখ্যা করে তিনি আরো বলেন, “একজন গ্রাহক নিউজ এলার্ট (যেটি ব্রেকিং নিউজ হিসেবে পরিচিত) পেতে চাইলে তাকে গ্রামীণফোনের ২২০০০ নম্বরে b লিখে এসএমএস পাঠিয়ে নিবন্ধিত হতে হয়। একইভাবে গ্রাহক ইচ্ছে করলেই b off লিখে একই নম্বরে এসএমএস পাঠিয়ে অনিবন্ধিত হতে পারেন।”

নিবন্ধনের নিয়ম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের ওয়েবসাইটেও দেয়া রয়েছে বলে ওই মুখপাত্র জানান।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এমএইচসি/এমআই/১৮৩৩ ঘ.