ক্যাটেগরিঃ bdnews24

ঢাকা, মে ২৯ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- বাসযাত্রীদের কাছ থেকে বেশি ভাড়া আদায়ের অপরাধে রোববার রাজধানীর বিভিন্ন রুটের পাঁচটি বাসের রুট পারমিট বাতিলের সুপারিশ করেছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট মো. তোফায়েল ইসলাম রোববার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে এ কথা জানান।

তিনি বলেন, বেশি ভাড়া আদায়ের অভিযোগে ‘বিহঙ্গ’ ও ‘আর্ক’ পরিবহনের দুটি বাস এবং রাজধানীর ৮ নম্বর রুটে চলাচলকারী তিনটি বাসের রুট পারমিট বাতিলের জন্য আঞ্চলিক পরিবহন কমিটির কাছে সুপারিশ করা হয়েছে।

ঢাকার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিট্রেট এসএম মাহবুবুর রহমান জানান, একই অপরাধে ঢাকার বিভিন্ন রুটের বাসের চালক ও সহকারীদের বিরুদ্ধে ৯১টি মামলা হয়েছে।

সেইসঙ্গে জরিমানা আদায় করা হয় ৩৬ হাজার একশ টাকা। আটটি বাসও আটক করা হয়।

তিনি বলেন, রোববার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্য়ন্ত বিআরটিএ’র দুটি ও জেলা প্রশাসনের ৪টি ভ্রাম্যমাণ আদালত ঢাকায় এ অভিযান চালায়।

তবে বাসের কোনো চালক বা সহকারীকে আটক করা হয়নি বলে ম্যাজিট্রেট জানান।

অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অভিযোগে এসব বাসের মালিকদের বিরুদ্ধে কেন মামলা হয়নি জানতে চাইলে ম্যাজিট্রেট মাহবুবুর রহমান বলেন, মালিকদের তো আর ঘটনাস্থলে পাওয়া যায়নি, তাই চালক-সহকারীর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

শনিবার রেল ভবনে বাস মালিকদের সঙ্গে ভাড়া সংক্রান্ত এক সভায় যোগাযোগমন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন সতর্ক করে দিয়ে বলেছিলেন, বাস-মিনিবাসে সরকার নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে বেশি নেওয়া হলে রুট পারমিট বাতিল ও তা জব্দ করা হবে।

গত ১২ মে সিএনজির দাম প্রায় ৫০ শতাংশ বাড়িয়ে প্রতি ঘনমিটার ২৫ টাকা নির্ধারণ করে সরকার।

ওই দিন থেকেই ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরীতে চলাচলকারী বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার ভাড়া ইচ্ছে মাফিক বাড়িয়ে দেয় মালিকরা। এতে গণপরিবহনে ভাড়া নিয়ে সৃষ্টি হয় নৈরাজ্য। অনেক স্থানে শ্রমিকদের সঙ্গে যাত্রীদের হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে।

এরপর ১৬ মে পরিবহন মালিক ও শ্রমিক পক্ষের সঙ্গে বৈঠকের পর ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরে বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার ভাড়া প্রতি কিলোমিটারে ৩৫ ও ৫০ পয়সা বৃদ্ধি করে সরকার।

এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি হলেও সরকার নির্ধারিত ভাড়া মানছে না কোনো রুটের যানবাহন।

নির্ধারিত ভাড়া নিতে মালিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে আবুল হোসেন হুঁশিয়ার করে দিয়ে বলেছেন, “ভাড়া নিয়ে কোনো জটিলতা সৃষ্টি হলে তার বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/কেটি/এইচএ/১৯৪৮ ঘ.