ক্যাটেগরিঃ bdnews24

 

ঢাকা, জুন ০২ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন ক্যান্সার আক্রান্ত আজম খানের অবস্থা অপরিবর্তিত রয়েছে।

এই পপ তারকাকে বৃহস্পতিবার রাতে স্কয়ার হাসপাতাল থেকে সিএমএইচে স্থানান্তর করা হয়। শরীরের বিভিন্ন অংশে ক্যান্সার ছড়িয়ে পড়ায় গত শুক্রবার থেকে তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে।

আজম খানের মেয়ে ইমা খান বৃহস্পতিবার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, তার বাবাকে কৃত্রিমভাবে অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে।

ব্যান্ড দল উচ্চারণ গড়ার মধ্য দিয়ে সঙ্গীতাঙ্গনে আত্মপ্রকাশকারী আজম খানের মুখগহ্বরের ২০১০ সালে ক্যান্সার ধরা পড়ে। এ জন্য দুবার তাকে সিঙ্গাপুরে নিয়েও চিকিৎসা করানো হয়। তবে গত নভেম্বরে সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা শেষ না করেই ফিরে আসেন পপগুরু।

অবস্থার অবনতি হলে গত শুক্রবার এই মুক্তিযোদ্ধাকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার চিকিৎসায় গঠন করা হয় একটি মেডিকেল বোর্ড।

ওই বোর্ডের সদস্য ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ কামরুজ্জামান চৌধুরী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, আজম খানের ক্যান্সার এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, চিকিৎসকদের পক্ষে এখন আর তেমন কিছু করার নেই। এখন কেবল তার কষ্ট লাঘবের চেষ্টা করা সম্ভব।

স্কয়ার হাসপাতালে চেস্ট রেডিওগ্রাফে দেখা যায়, আজম খানের দুই ফুসফুসের ৭৫ শতাংশেই ক্যান্সার ছড়িয়ে পড়েছে। চিকিৎসকরা বলছেন, এই পর্যায় থেকে তার আবার সুস্থ হয়ে ওঠার আশা কম।

অসুস্থ এই শিল্পীকে দেখতে বুধবার স্কয়ার হাসপাতালে যান রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমান। সে সময় ইমা খানের অনুরোধে আজম খানকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে স্থানান্তরের উদ্যোগ নেন রাষ্ট্রপতি।

১৯৫০ সালের ২৮ ফেব্র”য়ারি ঢাকার আজিমপুরে জন্ম নেওয়া মাহবুবুল হক খান সঙ্গীতাঙ্গনে পরিচিত হয়ে ওঠেন আজম খান নামে।

২১ বছর বয়সে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেওয়া এ সঙ্গীত শিল্পী স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে গঠন করেন ব্যান্ড দল ‘উচ্চারণ’। বাংলাদেশ টেলিভিশনে তার প্রথম কনসার্ট প্রচারিত হয় ১৯৭২ সালে। ১৯৭৪-৭৫ সালে বাংলাদেশ টেলিভিশনে ‘রেললাইনের ওই বস্তিতে’ গেয়ে স্থান করে নেন বাংলার মানুষর হৃদয়ে।

বাংলাদেশে পপ সঙ্গীতের জনপ্রিয়তা আজম খানের হাত ধরেই। দেশে এ জগতে কিংবদন্তী মনে করা হয় তাকে। আজম খানের কণ্ঠে ‘ওরে সালেকা, ওরো মালেকা’, ‘আলাল ও দুলাল’, ‘অনামিকা’, ‘অভিমানী, ‘আসি আসি বলে’ গানগুলো এখনো ফেরে মানুষের মুখে মুখে।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এনআইএইচ/জেকে/২৩০১ ঘ.