ক্যাটেগরিঃ bdnews24

 

ঢাকা, অগাস্ট ১১ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- নির্বাচন কমিশনের কার্যক্রমে গতিশীলতার ক্ষেত্রে দেশে সরকারি ও বিরোধী দল উভয়ই অন্তরায় হিসেবে কাজ করে বলে অনুযোগ করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) এটিএম শামসুল হুদা।

তিনি বৃহস্পতিবার এক গোলটেবিল আলোচনায় বলেছেন, নির্বাচন কমিশন সরকারি কোনো বিভাগ, কার্যালয় বা দপ্তরের অধীন না হলেও স্বাধীনভাবে কাজ করার ক্ষেত্রে সরকার ও বিরোধী দল উভয়ই কমিশনের জন্য অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায়।

“আর কোনো দেশে তো এরকম হয় না। আমাদের মতো করে নিজেদের কাজগুলো না সরকার পক্ষের কেউ করতে দেয়, না বিরোধী দলের কেউ”, বলেন তিনি।

সিইসি সরাসরি না বললেও রাজনৈতিক টানাপোড়েনের কারণে নির্বাচন কমিশনের সা¤প্রতিক সংলাপে বিএনপির না যাওয়ায়ই যে তার এ হতাশার কারণ, তা স্পষ্ট।

ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের প্রসঙ্গ ধরে তিনি বলেন, নির্বাচনের জন্য সরকারকে বার বার চিঠি দেওয়া হলেও সরকার একেক সময় একেক উত্তর দিচ্ছে।

ঢাকা সিটি নির্বাচন নিয়েও বিএনপি বলে আসছে, সরকার পরাজয়ের ভয়ে এ নির্বাচন এখনি চাইছে না।

তবে পরিস্থিতি যাই হোক না কেন, ২০১৪ সালেই পরবর্তী জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে বলে ঘোষণা দেন তিনি।

সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) আয়োজিত ‘নির্বাচন কমিশনের সংস্কার প্রস্তাব ও কিছু প্রাসঙ্গিক ভাবনা’ শীর্ষক ওই গোলটেবিল আলোচনায় প্রধান অতিথি ছিলেন শামসুল হুদা।

সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের জন্য প্রশাসনকে নিরপেক্ষ রাখার ওপরও জোর দিয়ে তিনি বলেন, দলীয়করণের অপসংস্কৃতি থেকে মুক্ত হতে না পারলে কোনো কিছুই সম্ভব নয়।

অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য কমিশন চেষ্টা করছে জানিয়ে সিইসি একইসঙ্গে বলেন, “ওয়ান ইলেভেন পরবর্তী নির্বাচনের ওরকম নিরপেক্ষতা আপনারা আশা করতে পারবেন না। কিন্তু যখন আমি শপথ নিয়েছি তখন আমি নিরপেক্ষভাবে এ দায়িত্ব পালনে বাধ্য।”

ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল অব বাংলাদেশের (টিআইবি) ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য এম হাফিজউদ্দিন খানের সঞ্চালনায় গোলটেবিলে আলোচনা করেন জাসদ সভাপতি আ স ম আব্দুর রব, আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মাহমুদুর রহমান মান্না, লেখক সৈয়দ আবুল মকসুদ, সুজন সভাপতি বদিউল আলম মজুমদার, সিপিবি নেতা রুহিন হোসেন প্রিন্স প্রমুখ।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এমএমআর/এমআই/১৬০৫ ঘ.