ক্যাটেগরিঃ bdnews24

ঢাকা, অগাস্ট ১৪ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- দুর্ঘটনায় নিহত তারেক মাসুদ ও আশফাক মুনীরকে শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সর্বস্তরের মানুষের ঢল নেমেছে।

দেশের বিভিন্ন সামাজিক-রাজনৈতিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, লেখক-শিল্পী-সাংবাদিক এবং সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিরা দুই কৃতীকে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা জানান।

রোববার সকাল ১০টার পর তাদের মরদেহ কারওয়ান বাজারে এটিএন নিউজ কার্যালয়ের সামনে আনা হয়। সকাল সোয়া ১০টার দিকে তাদের মরদেহ নিয়ে শহীদ মিনারে নিয়ে আসা হয়।

শহীদ মিনারে এই দুই কৃতির মরদেহ নিয়ে আসা হলে এক আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। অনেকেই কান্নায় ভেঙে পড়েন। অনেকে সপরিবারেরও এই দুই কৃতিকে শ্রদ্ধা জানাতে এসেছেন।

প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতির পক্ষ থেকে তাদের মরদেহে শ্রদ্ধা জানানো হয়ে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আব্দুস সোবহান গোলাপ ও সাইফুজ্জামান শিখর, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মণি, তথ্য মন্ত্রী আবুল কালাম আজাদ, আইন প্রতিমন্ত্রী কামরুল ইসলাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট মভাপতি নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু, নাট্য ব্যাক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার, অর্থনীতিবিদ আবুল বারাকাত, নাট্য ব্যক্তিত্ব আসাদুজ্জামান নূর, রোকেয়া প্রাচী, চিত্রলেখা গুহ, ইনামূল হক, জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু, সিপিবি সভাপতি মনজুরুল আহসান খান, বিটিভি, বাংলা একাডেমী, শিল্পকলা একাডেমী, উদীচী, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি, পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদ, কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ, ফরিদা আক্তার প্রমুখ।

আশফাক মুনীর ও তারেক মাসুদের মরদেহ এরপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদে তাদের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। পরে তাদের বনানি কবরস্থানে সমাহিত করা হবে।

শনিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার জোকা এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় আন্তর্জাতিক পুরস্কারপ্রাপ্ত চলচ্চিত্রকার তারেক মাসুদ ও টেলিভিশন চ্যানেল এটিএন নিউজের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) আশফাক (মিশুক) মুনীরসহ পাঁচজন নিহত হন।

দুর্ঘটনায় নিহত বাকি তিনজন হলেন, মাইক্রোবাসের চালক মুস্তাফিজ, তারেক মাসুদের প্রোডাকশন ম্যানেজার ওয়াসিম ও কর্মী জামাল।

তারেকের স্ত্রী ক্যাথরিন মাসুদ, চিত্রশিল্পী ঢালী আল-মামুন ও তার স্ত্রী দিলারা বেগম জলি এবং তারেকের প্রোডাকশন ইউনিটের সহকারী সাইদুল ইসলামও আহত হন এ দুর্ঘটনায়। তাদের রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালের ভর্তি করা হয়েছে।