ক্যাটেগরিঃ bdnews24

ঢাকা, সেপ্টেম্বর ০৮ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- অতিরিক্ত গতিতে গাড়ি চালানোর সময় কুকুর সামনে পড়ে যাওয়ায় প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানকের ছেলে দুর্ঘটনার কবলে পড়েন বলে বের হয়ে এসেছে তদন্তে।

মঙ্গলবার রাতে সংঘটিত দুর্ঘটনার তদন্তে গঠিত পুলিশের কমিটির প্রধান কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার উত্তম কুমার পাল বৃহস্পতিবার রাতে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেছে, গাড়িটি অতিরিক্ত গতিতে চলছিল।

গাড়ি চালাচ্ছিলেন প্রতিমন্ত্রীপুত্র সায়েম-উর রহমান নিজেই। তবে তার ড্রাইভিং লাইসেন্স ছিল কি না- তা জানতে পারেনি পুলিশ।

পুলিশ কর্মকর্তা উত্তম বলেন, দ্রুত গতিতে চলার সময় হঠাৎ করে একটি কুকুর গাড়ির সামনে পড়লে চালক শক্তভাবে ব্রেক ধরলেও তা নিয়ন্ত্রণ রাখতে পারেননি। এ জন্য গাড়ি একটি কালভার্টের রেলিংয়ে গিয়ে লাগে। এরপর প্রায় ২০/২২ ফুট নিচে খাদে পড়ে যায় গাড়িটি।

মঙ্গলবার রাত ১০টা ৫৫ মিনিটে চকরিয়া থেকে কক্সবাজার যাওয়ার সময় ভেন্ডিবাজার এলাকায় ওই দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানকের একমাত্র ছেলে সায়েম।

ঘটনার পরপরই কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির অপর দুই সদস্য হলেন বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) কক্সবাজার সার্কেলের সহকারী পরিচালক বিমলেন্দু চাকমা এবং চকরিয়া থানার ওসি মো. ফরহাদ।

কমিটির সদস্যরা জানান, তাদের তদন্ত ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে। ঘটনাস্থলের কাছাকাছি দোকানপাট ও বাড়িঘর রয়েছে। দুই আহতসহ অত্যন্ত ৫০ ব্যক্তির সঙ্গে কথা বলেছে কমিটি। শুক্র অথবা শনিবার প্রতিবেদন দেওয়া হবে।

ওসি মো. ফরহাদ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, দুর্ঘটনায় গাড়িটি দুমুড়ে মুচড়ে গেছে। এটি গ্যাসে চলতো না, চলতো তেলে। গাড়ির ভেতরের তার থেকে আগুন লাগারও প্রমাণ পাওয়া গেছে। এতে চালক ও পেছনের আসনের কিছু অংশ পুড়ে যায়। বৃহস্পতিবার সেনাবাহিনীর সদস্যরা গাড়িটি উদ্ধার করে।

গাড়ির সামনের চাকা ফেটে গেলে চালকের আসনে থাকা সায়েম নিয়ন্ত্রণ হারান বলে যে তথ্য দুর্ঘটনার পর পাওয়া গিয়েছিল- তার কোনো প্রমাণ তদন্ত কমিটি পায়নি বলে ওসি জানান।

সায়েম ছাড়াও তার মামা সৈয়দ গোলাম পিউ এবং এনামুল কবির নামে একটি বেসরকারি টেলিভিশন স্টেশনের এক ক্যামেরাম্যান ছিলেন ওই গাড়িতে। দুর্ঘটনায় তারা আহত হন।

ওসি বলেন, “ঘটনার সময় বৃষ্টি হচ্ছিল না। তবে এর কিছুক্ষণ আগে বৃষ্টির কারণে রাস্তা ভেজা ছিল। তাছাড়া রাস্তার কাছাকাছি বাঁক থাকার পরও অতিরিক্ত গতিতে গাড়ি চালনাই দুর্ঘটনার কারণ।”

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এলএইচ/জিএনএ/০০২৮ ঘ.