ক্যাটেগরিঃ bdnews24

 

ঢাকা, সেপ্টেম্বর ১৩ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- চিকিৎসায় অবহেলায় শিশুর মৃত্যুর অভিযোগে ইবনে সিনা হাসপাতালের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য ও পরিচালকদের গ্রেপ্তারে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশ স্থগিত করেছে আপিল বিভাগ।

আগামী ১৬ অক্টোবর পর্যন্ত হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত থাকবে।

মঙ্গলবার আপিল বিভাগের অবকাশকালীন চেম্বার বিচারপতি মো. আব্দুল ওয়াহ্হাব মিঞা এ আদেশ দেন।

গত ২৫ অগাস্ট হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ ফৌজদারী কার্যবিধি অনুযায়ী ইবনে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পুলিশকে নির্দেশ দেয়।

সে সময় হাইকোর্ট মৌখিকভাবে বলেছিল, ইবনে সিনার কর্তৃপক্ষ বলতে ট্রাস্টি বোর্ডের সব সদস্য ও পরিচালকদের বোঝাবে। আর ব্যবস্থা বলতে বোঝায় গ্রেপ্তার। তাই তাদের সবাইকে গ্রেপ্তার করতে হবে।

এ আদেশ স্থগিতের জন্য ইবনে সিনা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ চেম্বার বিচারপতির আদালতে আবেদন করে। তাদের পক্ষে আইনজীবী হিসাবে ছিলেন ব্যারিস্টার রফিক-উল হক, আব্দুল বাসেত মজুমদার, আব্দুল মতিন খসরু, আহসানুল করিম।

পরে আহসানুল করিম সাংবাদিকদের বলেন, “হাইকোর্ট ইবনে সিনা হাসপাতালের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্যদের গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়েছিলো। তাদের নাম মামলার এজাহারে ছিলো না। যে কারণে তাদের নি¤œ আদালতে আত্মসমর্পণের সুযোগ ছিলো না।”

“একই কারণে তারা হাইকোর্টের অন্য কোনো বেঞ্চেও জামিন চেয়ে আবেদন করতে পারেননি। তারা হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আবেদন করেন। আপিল বিভাগ হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করেছেন।”

গত ১৫ অগাস্ট বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল বৈশাখীতে প্রচারিত একটি প্রতিবেদনে বলা হয়, চিকিৎসায় অবহেলার কারণে ইবনে সিনা হাসপাতালে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

এ সংবাদ নজরে আসলে ১৭ আগস্ট হাইকোর্ট সংশ্লিষ্টদের তলব করে। ২৩ অগাস্ট ইবনে সিনা ট্রাস্ট ও পরিচালনা পর্ষদের সাত জন সদস্য এবং দুই চিকিৎসক হাইকোর্টে হাজির হন। সেদিন ইবনে সিনা হাসপাতালের সম্পদের হিসাব তলব করে আদেশ দেয় হাইকোর্ট।

পরদিন শিশুটির বাবা ইদরিস শিকদার দুই চিকিৎসকসহ চারজনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এসএন/পিডি/১৯১৭ ঘ.