ক্যাটেগরিঃ bdnews24

ঢাকা, সেপ্টেম্বর ২৫ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- দেশে অশান্তি চলছে দাবি করে তা নিরসনে পদক্ষেপ নিয়ে তারপরই বৈশ্বিক শান্তি প্রতিষ্ঠায় তৎপর হতে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির মুখপাত্র মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ভাষণের প্রতিক্রিয়ায় তিনি রোববার বলেন, “যে দেশের পুলিশের বুটের নিচে মানুষ পিষ্ট হয়, দুস্থরা ডাস্টবিন থেকে খাবার তুলে খায়, যেখানে গণতন্ত্র ও সুশাসন নেই; সে দেশের প্রধানমন্ত্রী বিশ্ব শান্তির মডেল উপস্থাপন করেছেন।

“এই সংবাদ পড়ে মনে মনে হাসছিলাম। তাই প্রধানমন্ত্রীকে বলবো, আগে আপনার ঘরের ভেতরে দেখুন।”

৭০০ কোটি মানুষের এই বিশ্বকে ‘পাল্টে দিতে’ শনিবার সাধারণ পরিষদের ৬৬তম সাধারণ পরিষদে দেওয়া ভাষণে ‘শান্তি-কেন্দ্রিক উন্নয়নের’ মডেল তুলে ধরেন হাসিনা।

এর প্রতিক্রিয়ায় ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউট মিলনায়তনে আলোচনা এক আলোচনা সভায় ওই কথা বলেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব ফখরুল।

তিনি বলেন, “এই সরকারের আমলে দেশে সুশাসন তিরোহিত হয়ে গেছে। প্রশাসন, বিচার বিভাগ, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে সর্বক্ষেত্রে দলীয়করণ। কোথাও চাকরি চাইলে প্রথমে দেখা হয়- তার বাবা-দাদারা কী করতেন। বিএনপি করলে চাকরি নেই। পদোন্নতি নেই।”

পুলিশি নির্যাতনের চিত্র তুলে ধরে বিএনপি নেতা বলেন, “পাঁচ পাচ বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন, এমন নেতার পায়ের নখ পুলিশ তুলে ফেলেছে। স¤প্রতি একটি রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতাকে গ্রেপ্তার করে বেদম প্রহার করা হয়েছে যে তিনি দাঁড়াতে পারেন না। তাকে হাত-কড়া পরিয়ে ছবি তোলা হয়েছে।”

“এটা কোন গণতন্ত্র, কোন সংস্কৃতি,” প্রশ্ন রাখেন তিনি।

ফখরুল প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের প্রতি ইঙ্গিত করে বলেন, “আপনি বলেছেন, বিশ্ব শান্তির জন্য আমি এই এই প্রস্তাব দিতে চাই। কিন্তু দেশের মানুষের অবস্থাটা কী? দেশের ৪০ শতাংশ মানুষ দরিদ্রসীমার নিচে বসবাস করছে। গণতন্ত্র অবরুদ্ধ হয়ে আছে।”

ক্ষমতাসীন দলের সমালোচনা করে তিনি বলেন, “আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রের কথা বলে, কিন্তু গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না। মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব দেওয়ার কারণে এই দলটি মনে করে, বাংলাদেশটা তাদের তালুকদারী।”

২৭ সেপ্টেম্বরের জনসভায় সরকারবিরোধী আন্দোলনের কর্মসূচি দেওয়া হবে জানিয়ে তাতে সক্রিয় থাকতে দলীয় নেতা-কর্মীদের প্রতি নির্দেশ দেন ফখরুল।

বিএনপির সহযোগী সংগঠন স্বেচ্ছাসেবক দলের ঢাকা মহানগর (উত্তর) শাখার প্রতিনিধি সভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপি নেতা।

এতে বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব আবদুস সালাম, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি হাবিব উন নবী খান, সাধারণ সম্পাদক শরফত আলী সপু, ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি ইয়াসীন আলী প্রমুখ।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এসএম/এমআই/১৪৪৬ ঘ.