ক্যাটেগরিঃ bdnews24

ঢাকা, অক্টোবর ০৫ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- তত্ত্বাবধায়ক সরকারকে ‘মরা গাছ’ আখ্যায়িত করে তাতে ফুল ফোটানোর চেষ্টা না করতে বিএনপির প্রতি পরামর্শ রেখেছেন সংবিধান সংশোধনে গঠিত সংসদীয় কমিটির অন্যতম প্রধান সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত।

আওয়ামী লীগের এ সংসদ সদস্য বুধবার ঢাকেশ্বরী মন্দিরে সাংবাদিকদের বলেন, “মরা গাছে ফুল ফোটে না। যে গাছ মরে গেছে, সে গাছে ফুল ফোটানোর চেষ্টা করবেন না।”

বিএনপিকে সংসদে ফেরার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, “কীভাবে নির্বাচন কমিশনকে শক্তিশালী করবো এবং কীভাবে নির্বাচন করবো- আসুন সে বিষয়ে আলোচনা করি।”

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে পূজা ম-প পরিদর্শনের সময় এ কথা বলেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সুরঞ্জিত।

সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনীর মাধ্যমে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিলের পর বর্তমান বিধান অনুযায়ী দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে, যা নিয়ে সরকারি দল ও বিরোধী দলের মধ্যে রাজনৈতিক টানাপোড়েন চলছে।

বিএনপি তত্ত্বাবধায়ক সরকার পুনর্বহালের দাবি জানিয়ে এলেও সরকারি দলের নেতারা তা প্রত্যাখ্যান করে আসছেন।

সুরঞ্জিত সোমবারও এক সভায় বলেন, সংবিধান সংশোধনের পর তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের সুযোগ নেই।

এর জবাবে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, “সংবিধান কোনো বাইবেল নয়। দেশের মানুষের জন্য সংবিধান ও আইন প্রণীত হয়। দেশের মানুষ নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন চায়। এটা সরকারকে উপলব্ধি করতে হবে।”

আওয়ামী লীগের আন্দোলনের মুখেই ১৯৯৬ সালে সংবিধানে যোগ হয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার পদ্ধতি। তখন বিএনপি এর বিরোধিতা করেছিলো।

তবে সর্বোচ্চ আদালত তত্ত্বাবধায়ক সরকার পদ্ধতি বাতিল ঘোষণা করার পর বর্তমান সরকার সংবিধান সংশোধনের যে উদ্যোগ নেয়, তাতে ক্ষমতা হস্তান্তরের সময়ে নির্দলীয় সরকারের অধীন নির্বাচনের এ ব্যবস্থা বাদ পড়ে।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ইতোমধ্যে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীন ছাড়া কোনো নির্বাচন হতে দেওয়া হবে না।

অন্যদিকে এর পাল্টায় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, দলীয় সরকারের অধীনেই নির্বাচন হবে এবং বিরোধী দলও তাতে অংশ নেবে।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এসইউএম/এমআই/১৭৩৫ ঘ.