ক্যাটেগরিঃ bdnews24

ত্রিপোলি, অক্টোবর ২০ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/রয়টার্স)- সির্তে হামলার পর নিহত হয়েছেন লিবিয়ার ক্ষমতাচ্যুত শাসক মুয়াম্মার গাদ্দাফি। অন্তর্বর্তী সরকারের (ন্যাশনাল ট্রান্সিশনাল কাউন্সিল-এনটিসি) কর্মকর্তারা একথা জানিয়েছেন। (আরো তথ্যসহ-১)

জন্মশহর সির্তের কাছে গাদ্দাফি কিভাবে মারা গেলেন সে ব্যাপারে সুস্পস্ট কোনো বিস্তারিত তথ্য এখনো পাওয়া না গেলেও এনটিসি’র কয়েকজন কর্মকর্তা তার মৃত্যু ঘোষণা করেছেন এবং গাদ্দাফির মতো দেখতে একজনের রক্তমাখা মুখমন্ডলের ছবিও প্রকাশ করেছেন।

এনটিসি’র তথ্যমন্ত্রী মাহমুদ শাম্মাম রয়টার্সকে বলেন, “যোদ্ধাদের হামলায় তিনি মারা যান। এর ফুটেজও আছে।”

যোদ্ধারা গাদ্দাফির মরদেহ দেখেছে এবং অন্য কর্মকর্তারা গাদ্দাফির মারা যাওয়ার খবর দিয়েছে বলেও জানান তিনি।
তবে তার এ দাবি নিরপেক্ষ সূত্রে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

এনটিসি’র আরেক কর্মকর্তা আব্দুল মজিদ ম্লেগতা বলেন, “আঘাতের কারণে গাদ্দাফি মারা গেছেন। বন্দি হওয়ার সময় তিনি মারা যান। তার (গাদ্দাফির) মাথায়ও আঘাত লাগে।”

“গাদ্দাফির গ্র”পের সেনাদের ওপর ব্যাপক গুলি চালানো হয় এবং তিনি মারা যান,” বলেন তিনি।

এর আগে মজিদ গাদ্দাফিকে আহত অবস্থায় বন্দি করার কথা জানিয়েছিলেন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে তিনি বলেন, খুব ভোরে সির্তের কাছ থেকে গাদ্দাফিকে বন্দি করা হয়। গাড়ি বহর নিয়ে পালানোর চেষ্টার সময় ন্যাটো বিমান হামলার শিকার হন গাদ্দাফি। তার দুই পায়ে আঘাত লাগে।

লিবিয়ার সাবেক এ শাসককে বন্দি করার সময় তার সশস্ত্র বাহিনীর প্রধান আবু বকর নিহত হয়েছে বলেও জানান তিনি।

রয়টার্সকে টেলিফোনে মজিদ বলেন, “তাকে (গাদ্দাফি) বন্দি করা হয়েছে। তার দুই পায়ে জখম হয়েছে…..তাকে অ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।”

তবে মজিদের এ দাবিও নিরপেক্ষ সূত্রে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। ওদিকে, পশ্চিমা বাহিনী জানিয়েছে তারা ঘটনাটি খতিয়ে দেখছে।

ন্যাটো জানায়, তারা সির্তের কাছে একটি গাড়িবহরে বিমান হামলা চালিয়েছে। কিন্তু সেই গাড়িবহরে গাদ্দাফি ছিলেন কিনা তা নিশ্চিত জানা যায়নি।

এনটিসি বাহিনী গাদ্দাফির জন§শহর সির্ত শহর দখলের দাবি করার পরপরপই তাকে বন্দি করার খবর জানায়।

গাদ্দাফিবিরোধী এক যোদ্ধা জানান, মাটিতে একটি গর্তের ভেতরে গাদ্দাফিকে খুঁজে পাওয়া যায়। দুই যোদ্ধা তাকে ধরতে গেলে তাদেরকে ‘গুলি কোরোনা’, ‘গুলি কোরোনা’ বলেন তিনি।

গাদ্দাফি গুলিতে নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে এনটিসি’র কয়েকজন যোদ্ধা। ওদিকে, সির্তে এনটিসি’র এক যোদ্ধা বলেছেন, রাস্তার কাছে একটি সুড়ঙ্গে গাদ্দাফি ধরা পড়ার পর তাকে গুলি করে মারতে দেখেছেন তিনি।

চলতি বছর ২৩ অগাস্টে রাজধানী ত্রিপোলির পতনের মধ্য দিয়ে ক্ষমতাচ্যুত হন ৪২ বছর ধরে ক্ষমতায় থাকা গাদ্দাফি। এরপর থেকে তার অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত কিছু জানা যাচ্ছিলো না।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এমডি/এলকিউ/১৭২৯ ঘ.

_________________
সংবাদটি পাঠকের মন্তব্যের জন্য ব্লগে শেয়ার করা হলো। বিডিনিউজ টুয়েন্টিফর ডটকম ব্লগ একটি সিটিজেন জার্নালিজম ভিত্তিক ব্লগ। এ সংবাদটি সম্পর্কে আপনার কোনো প্রতিক্রিয়া থাকলে লিখতে পারেন স্বতন্ত্র পোস্টে। পডকাস্ট করতে পারেন অডিও, ভিডিও মাধ্যমে। কোনো পরামর্শ বা অভিযোগ থাকলে যোগাযোগ করুন ফেসবুক গ্রুপে