ক্যাটেগরিঃ bdnews24

শামীম আহমেদ
বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম প্রতিবেদক

ঢাকা, নভেম্বর ২৫ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- কোনো বিদেশি প্রতিষ্ঠান সরাসরি মোবাইল সেট আমদানি করতে পারবে না এবং আমদানি করা সব সেটেই থাকতে হবে বাংলা কি-প্যাড।

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কমিশনের চেয়ারম্যান জিয়া আহমেদ শুক্রবার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেছেন, কয়েক দিনের মধ্যে এ সংক্রান্ত নীতিমালা জারি করা হবে।

আগামী ফেব্র“য়ারি থেকেই মোবাইল সেট আমদানির ক্ষেত্রে বাংলা কি-প্যাড থাকা বাধ্যতামূলক হবে বলে জানান বিটিআরসি কর্মকর্তারা।

এ সিদ্ধান্তের পক্ষে যুক্তি দেখিয়ে বিটিআরসি চেয়ারম্যান বলেন, “এটা হলে সাধারণ মানুষ আরো সহজে হ্যান্ডসেট ব্যবহার করতে পারবে এবং বাংলা প্রচলন হবে।”

হ্যান্ডসেট আমদানির ক্ষেত্রে বিটিআরসির সিদ্ধান্ত হলো, দেশি আমদানিকারকরাই তা আনতে পারবে। শুধু তাই নয়, মোবাইল অপারেটররাও সরাসরি হ্যান্ডসেট আমদানি করতে পারবে না, দেশি আমদানিকারকদের মাধ্যমে তা করতে হবে।

এ বিষয়ে জিয়া বলেন, “বিদেশি প্রতিষ্ঠান আমদানি করলে দেশি ব্যবসায়ীরা ক্ষতির সম্মুখীন হন।”

তবে উন্নতমানের এবং বেশি দামের সেট আমদানির ক্ষেত্রে মোবাইল অপারেটরদের (গ্রামীণফোন, বাংলালিংক, রবি, সিটিসেল, এয়ারটেল, টেলিটক) বিশেষ সুবিধা দেওয়া হতে পারে বলে জানান বিটিআরসির ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা।

বিটিআরসির সিদ্ধান্ত স্বাগত জানিয়ে বাংলাদেশ মোবাইল হ্যান্ডসেট ইম্পোটার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আলীম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, গত আড়াই বছর ধরে এ জন্য সুপারিশ করা হচ্ছিলো।

এ সমিতির অধীনে প্রায় ৫০টি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান বছরে প্রায় ৬০ লাখ হ্যান্ডসেট আমদানি করে বলে জানান ফয়সাল। সমিতির বাইরেও আরো আমদানিকারক রয়েছে।

ফয়সাল আলীম বলেন, “অ্যাসোসিয়েশনের বাইরের আমদানিকারকদের মাধ্যমে হ্যান্ডসেট আমদানির ফলে একই আইএমইআই (International Mobile Equipment Identity) নম্বর দিয়ে একাধিক সেট আসছে। এতে সেট হারিয়ে গেলে ব্যবহারকারীরা নানা সমস্যায় পড়ছে।”

একই আইএমইআই নম্বরে একাধিক সেট প্রতিরোধে ইআইআর (Equipment Identification Register) নামে একটি যন্ত্র বিটিআরসিতে স্থাপন করা হবে বলে জানান কমিশনের চেয়ারম্যান জিয়া আহমেদ।

সমিতির বাইরের প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে হ্যান্ডসেট আমদানি নিষিদ্ধের সুপারিশ করে ফয়সাল আলীম বলেন, এ উদ্যোগ নেওয়া হলে একই আইএমইআই নম্বরে একাধিক সেট আমদানি প্রতিরোধ সম্ভব হবে।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এসএইচএ/এমআই/১৯২০ ঘ.