ক্যাটেগরিঃ bdnews24

ঢাকা, ডিসেম্বর ০২ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- সংসদে পাস হওয়া ঢাকা সিটি কর্পোরেশন (ডিসিসি) ভাগের বিলে রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমান সই করেছেন।

এর মধ্য দিয়ে মঙ্গলবার সংসদে পাস হওয়া বিলটি আইনে পরিণত হওয়ায় আনুষ্ঠানিকভাবে বিভক্ত হয় ঢাকা সিটি কর্পোরেশন।

ডিসিসির সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার ব্যক্তিগত ও আবাসিক নিরাপত্তা প্রত্যাহার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তার ব্যক্তিগত সহকারী মনির হোসেন।

বিলে রাষ্ট্রপতির সইয়ের তথ্য বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে পাওয়া যায়।

সাদেক হোসেনের ব্যক্তিগত সহকারী মনির হোসেন বৃহস্পতিবার রাত ১২টার পর বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আজ [বৃহস্পতিবার] দুপুর ২টা থেকে মেয়রের বাসার নিরাপত্তা ব্যবস্থা তুলে নিয়েছে পুলিশ।”

বিল পাসের রাতে [মঙ্গলবার] তার গাড়ি নিরাপত্তা এবং দেহরক্ষী প্রত্যাহার করা হয় বলেও জানান মনির।

সাদেক হোসেন গুলশান ২ নম্বরে তার ব্যক্তিগত বাড়িতে বসবাস করেন।

প্রধান বিরোধী দল বিএনপির অনুপস্থিতিতে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন করে স্থানীয় সরকার (সিটি কর্পোরেশন) (সংশোধন) বিল সংসদে পাস হয় মঙ্গলবার।

এর পরদিন ডিসিসি ভাগের সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে আগামী ৪ ডিসেম্বর রাজধানীতে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডাকে ঢাকা ভাগের বিরোধিতা করে আসা বিএনপি।

একইদিন বিএনপির ঢাকা মহানগর কমিটির আহ্বায়ক ও সাবেক সিটি মেয়র সাদেক হোসেন ওই সিদ্ধান্ত অবৈধ ঘোষণার জন্য হাই কোর্টে রিট আবেদন করেন।

শুনানি শেষে ওই সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে তা চার সপ্তাহের মধ্যে জানাতে সরকারকে নির্দেশ দেয় আদালত।

ডিসিসি ভাগের পক্ষে যুক্তি হিসেবে প্রধানমন্ত্রী ইতিমধ্যে বলেছেন, বিপুল জনসংখ্যার ঢাকা শহরে নাগরিকদের সেবা পৌঁছে দিতে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

রাষ্ট্রপতির সম্মতি পাওয়ার পর ডিসিসি ভাগের বিলটি গেজেট আকারে প্রকাশের ৯০ দিনের মধ্যে এ দুই সিটি কর্পোরেশনে নির্বাচনের বাধ্যবাধকতা রয়েছে আইনে।

এ সময় সরকার উপযুক্ত ব্যক্তি বা সরকারি কর্মকর্তাকে সিটি কর্পোরেশনে প্রশাসক নিয়োগ দিতে পারবে। এ সময় বর্তমান মেয়র ও কাউন্সেলাররা বহাল থাকতে পারবেন না।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এমএইচসি/এসএম/পিডি/০১৩৫ ঘ.