ক্যাটেগরিঃ bdnews24

ঢাকা, ডিসেম্বর ০৫ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- মন্ত্রিসভায় নতুন দুই জনের দপ্তর বণ্টনের পাশাপাশি পুরনোদের মধ্যে জি এম কাদের ও ফারুক খানের মন্ত্রণালয় অদল-বদল হয়েছে।

যোগাযোগ মন্ত্রণালয় থেকে সরিয়ে সৈয়দ আবুল হোসেনকে নবগঠিত তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

নতুন মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের পেয়েছেন যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব। নতুন মন্ত্রণালয় রেলপথের মন্ত্রী হয়েছেন সদ্য শপথ নেওয়া সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত।

ইয়াফেস ওসমান থাকছেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে। রোববারই বিজ্ঞান, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় ভেঙে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় গঠন করা হয়। যোগাযোগ মন্ত্রণালয় ভেঙে রেলপথ নামে আলাদা মন্ত্রণালয়ও গঠন করা হয় একই দিনে।

সোমবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ মন্ত্রিসভার দপ্তর রদবদলের প্রজ্ঞাপন জারি করে।

প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, এখন থেকে বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটনমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করবেন আওয়ামী লীগ নেতা ফারুক খান।

অন্যদিকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে যাবেন মহাজোট শরিক জাতীয় পার্টির নেতা জি এম কাদের।

গত ২৯ নভেম্বর ক্ষমতাসীন মহাজোটের মন্ত্রিসভার তৃতীয় দফায় স¤প্রসারণে মন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন সুরঞ্জিত ও কাদের।

ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি কাদের আওয়ামী লীগের গত সরকারে যুব, ক্রীড়া ও সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ছিলেন।

প্রবীণ সংসদ সদস্য সুরঞ্জিত এবারই প্রথম মন্ত্রী হলেন।

নবম সংসদ নির্বাচনের পর আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট নিরঙ্কুশ বিজয় লাভের পর ২০০৯ সালের ৬ জানুয়ারি শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন, গঠন করেন ৩২ সদস্যের মন্ত্রিসভা।

এর ১৮ দিন পর মন্ত্রিসভায় আরো ছয় জন যোগ হন। ওই বছর ৩১ জুলাই দ্বিতীয় দফা কলেবর বাড়ে মন্ত্রিসভার। সেদিন নতুন একজন মন্ত্রী ও পাঁচ প্রতিমন্ত্রী শপথ নেন।

বর্তমানে মন্ত্রিসভার সদস্য ৪৫ জন- এদের ২৮ জন মন্ত্রী এবং ১৭ জন প্রতিমন্ত্রী।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এমকে/এমআই/১০৫০ ঘ.