ক্যাটেগরিঃ bdnews24

 

ঢাকা, ফেব্রুয়ারি ১৭ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- বিকাল সাড়ে ৫টায় উদ্বোধন। তবে কাজী শাহরিন হক রওনা হয়েছেন সকাল ৯টায়ই। তেজগাঁও থেকে তিনি যাবেন গুলিস্তান। উপলক্ষ বিশ্বকাপ ক্রিকেটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। দুপুর ২টায় গেট খুললে সঙ্গে সঙ্গে ঢোকার তারণা থেকেই তার এত আগে রওনা হওয়া।

বেসরকারি একটি প্রতিষ্ঠানের চাকরিজীবী শাহরিনেরে মতো নগরবাসীর সব পথ এখন এসে মিলছে গুলিস্তানে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে। বৃহস্পতিবার বিকালে সেখানেই জমকালো অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শুরু হচ্ছে বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় আসর।

এই প্রথম এত বড় আয়োজনের সঙ্গী বাংলাদেশ। ঢাকার পাশাপাশি চট্টগ্রামেও হবে দুটি খেলা। বাংলাদেশের পাশাপাশি ভারত ও শ্রীলঙ্কাও এবারের বিশ্বকাপের আয়োজক।

ক্রিকেটপ্রেমীদের কলরবে সকাল থেকেই স্টেডিয়াম প্রাঙ্গণ রয়েছে মুখর। বাজছে ভুভুজেলাও। পাশাপাশি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরাও তৎপর রয়েছে।

বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের প্রধান ফটকে (গেট-১) বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম এর সঙ্গে কথা হয় আলী আজগর নামে এক ক্রিকেটপ্রেমীর। টিকিট তিনি পাননি, তবু এসেছেন স্টেডিয়ামে।

পেশায় ব্যবসায়ী আজগর বলেন, “দেশের মাটিতে বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের টিকিট কিনতে পারেন নি। তাই সন্ধ্যায় টিভিতে মূল অনুষ্ঠান দেখবেন। কিন্তু তার আগে স্টেডিয়ামকে ঘিরে যে আয়োজন, তা নিজ চোখে দেখার জন্য এসেছি।”

স্টেডিয়ামের আশপাশের পরিবেশ সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “অনেক ভালো লাগছে। কিন্তু বিশ্বমানের একটি আয়োজনের প্রস্তুতিতে একটু ঘাটতি রয়েছে। এখনো দেখছি বিভিন্ন স্থানে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজ চলছে। এমনটা হওয়া উচিত হয়নি।”

ফটকগুলোতে বিক্রেতারা বাংলাদেশের লাল-সবুজ পতাকা বিক্রি করছেন ২০ থেকে ১০০ টাকা দরে। আবার কেউ কেউ মুখে পতাকার ছাপ এঁকে নিচ্ছেন।

বিভিন্ন আকৃতির বাঁশি (ভুভুজেলা) বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৭০ টাকায়।

মোহাম্মদপুর থেকে আসা একদল ক্রিকেটপ্রেমী বিশাল আকৃতির একটি জাতীয় পতাকা নিয়ে স্টেডিয়ামের চারপাশ প্রদক্ষিণ করেন।

পতাকাবাহী দলের একজন খন্দকার কাশেম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে, “ক্রিকেট বাংলাদেশকে আজ বিশ্বদরবারে নতুনভাবে হাজির করবে। সেই আনন্দের অংশীদার হতেই আমাদের এ আয়োজন।”
সময় যতই গড়াচ্ছে, স্টেডিয়াম পাড়ায় ভিড় ততই বাড়তে দেখা যাচ্ছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মূল পর্ব বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে শুরু হবে বিকেল ৫টা ৪৫ মিনিটে। তবে এর আগে ৪টা ৫৫ মিনিটে শুরু হবে ৫০ মিনিটের আরেকটি অনুষ্ঠান।

সব মিলে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান চলবে প্রায় ১শ’ ৩৫ মিনিট ধরে। অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা করেছে উইজ ক্রাফট ও বাংলাদেশের এশিয়াটিক ইভেন্ট।

৫০ মিনিটের অনুষ্ঠানে গান গাইবেন বাংলাদেশ, ভারত ও শ্রীলঙ্কার চারজন পুরুষ ও চার নারী শিল্পী।

প্রধানমন্ত্রী হাসিনাসহ আমন্ত্রিত অতিথিরা স্টেডিয়ামে প্রবেশের পর শুরু হবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মূল পর্ব।

উদ্বোধন বৃহস্পতিবার হলেও খেলা মাঠে গড়াবে ১৯ ফেব্রুয়ারি। রাজধানীর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে উদ্বোধনী খেলায় বাংলাদেশ লড়বে ভারতের সঙ্গে।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এআরআর/এমআই/১২৪০ ঘ.