ক্যাটেগরিঃ bdnews24

 

ঢাকা, এপ্রিল ২৫ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- প্লট বিক্রির নামে অর্থ আত্মসাতের মামলায় ইস্ট ওয়েস্ট প্রপার্টি ডেভেলপমেন্ট লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক আহমেদ আকবর সোবহানসহ তিনজনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে আদালত।

নির্দেশ অনুযায়ী হাজির না হওয়ায় ঢাকার মহানগর হাকিম মুহাম্মদ সামছুল ইসলাম বুধবার দুপুরে এই পরোয়ানা জারি করেন।

অপর দুই আসামি হলেন- বসুন্ধরার পরিচালক ও সোবহানের ছেলে সাদাত সোবহান এবং ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুব মোর্শেদ।

প্লট বিক্রির নামে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের চেয়ারম্যান মুহাম্মদ শাহজাহান গত বছরের ১৮ ডিসেম্বর চার জনকে আসামি করে একটি প্রতারণা মামলা দায়ের করেন।

আদালত গত ২০ ফেব্রুয়ারি ওই চার জনকে হাজিরের নির্দেশ দিলে ইস্ট ওয়েস্ট প্রপার্টির উপ ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. তৌহিদুল ইসলাম বুধবার উপস্থিত হয়ে জামিনের আবেদন করেন।

শুনানি শেষে আদালত তাকে ২ জুলাই পর্যন্ত জামিন দিয়ে বাকি তিন জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির নির্দেশ দেন।

বাদীর আইনজীবী হাবিবুর রহমান শওকত বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আদালতের সমন পেয়েও মামলার ধার্য দিনে অপর তিন আসামি না আসায় এই পরোয়ানা জারি হয়েছে।”

ইস্ট ওয়েস্ট প্রপার্টি ডেভেলপমেন্ট নামের আবাসন নির্মাতা কোম্পানিটি বসুন্ধরা গ্র“পের একটি সহযোগী প্রতিষ্ঠান। আহমেদ আকবর এ গ্রুপের চেয়ারম্যান। কাগজ, ইস্পাত, সিমেন্ট ও এলপি গ্যাস খাতে এ গ্রুপের বিনিয়োগ রয়েছে।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, বসুন্ধরা-বারিধারা প্রকল্পে প্লট বিক্রির বিজ্ঞাপন দেখে বাদী শাহজাহান ওই প্রকল্পের ‘এ’ ব্লকে ৫ কাঠা আয়তনের দুটি প্লট কেনার জন্য টাকা দেন।

২০০৭ সালের ১৫ অগাস্ট থেকে পরের বছরের ২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তাদেরকে মোট দুই কোটি ৬৩ লাখ ৫৬ হাজার ২৮৬ টাকা দেওয়ার পর প্লটের দলিল এবং চূড়ান্ত বরাদ্দপত্র দেওয়া হয় শাহজাহানকে।

কিন্তু আসামিরা পরে প্লটের বিপরীতে অতিরিক্ত আরো দুই কোটি দাবি করেন অভিযোগ করে মামলায় বলা হয়, শাহজাহান এ অতিরিক্ত অর্থ দিতে অস্বীকৃতি জানালে আসামিরা তার বরাদ্দ বাতিল করে দেয়। এরপর প্লট বাবদ নেওয়া টাকাও ফেরত দিতে অস্বীকার করেন তারা।

বাদীর অভিযোগ, আসামিরা একই উপায়ে তার আরো পাঁচ জন আত্মীয়র টাকা আত্মসাৎ করেছে।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/পিবি/আরএ/জেকে/১৫১৯ ঘ.