ক্যাটেগরিঃ bdnews24

ঢাকা, এপ্রিল ২৬ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- হত্যাকাণ্ডের আড়াই মাস পর রাসায়নিক পরীক্ষার জন্য সাংবাদিক দম্পতি সাগর সরওয়ার ও মেহেরুন রুনির মরদেহ কবর থেকে তোলা শুরু করেছে র‌্যাব।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টা ২০ মিনিটে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শহীদুজ্জামানের উপস্থিতিতে আজিমপুর গোরস্তানে লাশ তোলা শুরু হয়। প্রথমে তোলা হয় সাগর সরওয়ারের মরদেহ।

র‌্যাবের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ছাড়াও গণমাধ্যম কর্মীরা সেখানে উপস্থিত আছেন।

গত ১১ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর রাজাবাজারে নিজেদের ভাড়া বাসায় খুন হন মাছারাঙা টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক সাগর এবং এটিএন বাংলার জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রুনি। ওই ঘটনায় অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের আসামি করে শেরেবাংলা নগর থানায় একটি হত্যা মামলাও করেন রুনির ভাই।

এ পর্যন্ত কোনো আসামি গ্রেপ্তার না হওয়ায় এবং হত্যার কারণ জানতে না পারার পর হাই কোর্ট ক্ষোভ প্রকাশ করে পুলিশের দক্ষতা নিয়েও প্রশ্ন তোলে। এরপর র‌্যাবকে দায়িত্ব দিয়ে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে দ্রুততম সময়ের মধ্যে এ মামলার তদন্ত শেষ করার নির্দেশ দেয় হাই কোর্ট।

আদালতের আদেশে দায়িত্ব নেওয়ার পর গত মঙ্গলবার ভিসেরা ও রাসায়নিক পরীক্ষার জন্য কবরে থেকে সাগর-রুনির লাশ তোলার আবেদন করে র‌্যাব।

ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম বিকাশ কুমার সাহা এ ব্যাপারে অনুমতি দিলে নির্বাহী হাকিম শহীদুজ্জামানকে লাশ তোলার বিষয়টি তদারক করার দায়িত্ব দেওয়া হয়।

র‌্যাবের গণমাধ্যম ও আইন শাখার পরিচালক এম সোহায়েল মঙ্গলবার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, হত্যাকাণ্ডের পর সাগর-রুনির ময়নাতদন্ত করা হলেও ভিসেরা পরীক্ষা হয়নি। হত্যার আগে তাদের কিছু খাওয়ানো হয়েছিল কি না তা জানতেই আদালতে লাশ তোলার আবেদন করা হয়।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এএসটি/জেকে/১০৪০ ঘ.