ক্যাটেগরিঃ bdnews24

 

ঢাকা, মে ১২ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- মুহাম্মদ ইউনূসের সমালোচনা করায় সরকারের মুখপাত্র ও এলজিআরডি মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম এবং শিল্পমন্ত্রী দিলীপ বড়–য়াকে একচোট নিয়েছেন প্রবীণ আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিক-উল হক।

নাগরিক আন্দোলন নামে নাগরিক সমাজের একটি সংগঠনের আহবায়ক রফিক দৃশ্যত সৈয়দ আশরাফের জানাশোনার বিষয়ে প্রশ্ন তুলে তাকে ‘বেকুব’ বলে ইঙ্গিত করেন। দিলীপ বড়–য়া ইউনূসের ‘নখের যোগ্য’ নন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকের বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, “যুদ্ধ থামালে পিস প্রাইজ পাবে, তাহলে বোঝেন কত বড় বেকুবের দেশে আছি আমরা। একটা পার্টির এত বড় একটা পোস্ট (পদে ) পজিশন হোল্ড করছেন তিনি, পিস প্রাইজ বলতে বোঝেন- যুদ্ধ থামালে প্রাইজ পাবেন, তা না হলে পাবেন না।”

আশরাফের মন্তব্য হাস্যকর অভিহিত করে তিনি বলেন, “এই যে একটা মানি (সম্মানী) লোককে অসম্মান করা, এর চেয়ে জঘন্য কাজ আর নেই।”

বৃহস্পতিবার সৈয়দ আশরাফ বলেন, “তার (ইউনূস) বেসিক সাবজেক্ট ছিল অর্থনীতি। তিনি অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন না। কোনো যুদ্ধ বন্ধ না করেই তিনি শান্তিতে নোবেল পেলেন।”

“নোবেল কীভাবে আসে- তা আমাদের এখানে অনেকেই জানেন,” বলেন আশরাফ।

শনিবার বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন মিলনায়তনে রাজনৈতিক পরিস্থিতি বিষয়ে রফিক-উল হকের ‘একক বক্তৃতার’ আয়োজন করে মুক্তচিন্তা ফোরাম নামের একটি সংগঠন।

বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী দিলীপ বড়–য়া এবং বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরেরও সমালোচনা করেন সামরিক শাসক এরশাদের অ্যাটর্নি জেনারেল রফিক-উল হক।

শিল্পমন্ত্রীর সমালোচনা করে তিনি বলেন, “তার প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই বলছি, উনি তো ইউনূস সাহেবের নখের যোগ্যও নন।”

ইউনূস ও ব্র্যাকের প্রধান ফজলে হাসান আবেদের সমালোচনা করে শুক্রবার এক আলোচনা সভায় শিল্পমন্ত্রী বলেন, “আপনাদের যদি তত্ত্বাবধায়ক সরকার এতই ভালো লাগে, তাহলে আপনারা রাজনীতিতে আসুন, রাজনীতিতে এসে কথা বলুন।”

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এআরআর/এমআই/২১০০ ঘ.