ক্যাটেগরিঃ bdnews24

সিলেট, মে ২০ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- অবহেলা ও অব্যবস্থাপনার কারণে বাস দুর্ঘটনার অভিযোগে ১০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে সোহাগ পরিবহনের এমডির বিরুদ্ধে মামলা করেছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষক।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইনঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রভাষক আবু আউয়াল মো. শায়েব রোববার দুপুরে সিলেটের অতিরিক্ত জেলা যুগ্ম জজ আদালতে এ মামলা দায়ের করেন।

ওই বিভাগের বিভাগীয় প্রধান এবং জনপ্রিয় সাহিত্যিক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন।

বাদীর আইনজীবী অ্যাডভোকেট পঙ্কজ কুমার রায় জানান, আদালত মামলাটি আমলে নিয়েছেন। পরে এ বিষয়ে আদেশ হবে।

তিনি বলেন, মামলায় সোহাগ পরিবহনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. ফারুক তালুকদার সোহেল, চেয়ারম্যান আনোয়ারা বেগম, সিলেট কার্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. রুস্তম আলী, বিআরটিএ চেয়ারম্যান এবং সিলেটের সহকারী পরিচালকসহ ছয় জনকে আসামি করা হয়েছে।

মামলার আরজিতে বলা হয়, ২০১১ সালে ২ অগাস্ট নরসিংদীর শিবপুরে ঢাকা-সিলেট মহসড়কে সোহাগ পরিবহনের একটি বাসের চাকা ফেটে অপর একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে ১৬ জন নিহত হন।

ওই দুর্ঘটনায় মারাত্মক আহত হন মামলার বাদী প্রভাষক শোয়েব। এ দুর্ঘটনায় শারীরিক, মানসিক, পেশাগত ও আর্থিক ক্ষয়ক্ষতির জন্য শোয়েব তার আইনজীবীর মাধ্যমে সোহাগ পরিবহন কর্তৃপক্ষের কাছে ১০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে উকিল নোটিশ দেন।

সোহাগ পরিবহন কর্তৃপক্ষ নোটিশ গ্রহণ করে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ক্ষতিপূরণ না দেওয়ায় এ মামলা করা হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে মামলার আরজিতে।

শিক্ষক শোয়েব বলেন, “দুর্ঘটনার পর দীর্ঘ ছয় মাস অসুস্থ ছিলাম। তাই মামলা করতে দেরি হয়েছে।”

ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল এ সময় বলেন, “সড়ক দুর্ঘটনাকে শুধু দুর্ঘটনা বলা যাবে না। এগুলো হত্যাকাণ্ড। বেপরোয়াভাবে গাড়ি চলানোর কারণেই অধিকাংশ দুর্ঘটনা ঘটে। এছাড়া মালিকপক্ষ ঠিকমতো গাড়ির ব্যবস্থাপনা না করায় দুর্ঘটনার ঝুঁকি বাড়ে।”

দুর্ঘটনা রোধে কঠোর ট্রাফিক আইন করার দাবি জানান তিনি।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/প্রতিনিধি/আরআরডি/জেকে/১৪৫৫ ঘ.