ক্যাটেগরিঃ bdnews24

ঢাকা, মে ২১ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বিয়ে নিবন্ধনের জন্য দেশে প্রথমবারের মতো আইন হচ্ছে, যদিও এতে নিবন্ধনের বিষয়টি ঐচ্ছিক রাখা হচ্ছে।

সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকে ‘হিন্দু বিবাহ নিবন্ধন আইন-২০১২’ এর খসড়ায় নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়।

এছাড়া অর্পিত সম্পত্তির তালিকা গেজেট আকারে প্রকাশের সময়সীমা আরো ১৫০ দিন বাড়িয়ে ‘অর্পিত সম্পত্তি প্রত্যর্পণ আইন (সংশোধন) ২০১২’ এর খসড়াও মন্ত্রিসভা অনুমোদন করেছে।

বৈঠকের পর মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ মোশাররাফ হোসাইন ভূইঞা জানান, আইন মন্ত্রণালয়ের মতামত সাপেক্ষে এ দুটি আইনের খসড়ায় চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের মতামত পাওয়ার পর আইনের খসড়াটি পাসের জন্য জাতীয় সংসদে তোলা হবে।

অর্পিত সম্পত্তি ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য গত বছরের ১১ ডিসেম্বর জাতীয় সংসদে অর্পিত সম্পত্তি প্রত্যর্পণ আইন (সংশোধন) পাস করে সরকার, যাতে ১৫০ দিনের মধ্যে অর্পিত সম্পত্তির মৌজাভিত্তিক জেলাওয়ারি তালিকা প্রস্তুত করে গেজেট প্রকাশ করতে বলা হয়।

ওই সময়ের মধ্যে ‘ক’ তফসিলভুক্ত (ইজারা দেওয়া) সম্পত্তির তালিকা প্রকাশ করা হলেও ‘খ’ তফসিলভুক্ত (ইজারা না দেওয়া) অর্পিত সম্পত্তির গেজেট প্রকাশ করতে পারেনি ভূমি মন্ত্রণালয়।

এ কারণেই আইন সংশোধন করে গেজেট প্রকাশের জন্য আরো ১৫০ দিন সময় দেওয়া হলো বলে সচিব জানান।

একইসঙ্গে অর্পিত সম্পত্তির মালিকানার দাবিসহ প্রমাণসহ কাগজপত্র নিয়ে অবমুক্তির আবেদনের সময় গেজেট বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের ৯০ দিনের পরিবর্তে ১৫০ দিন এবং সম্পত্তি প্রত্যর্পণের আবেদনের সময় ৯০ দিনের পরিবর্তে ১২০ দিন করার প্রস্তাব অনুমোদন করেছে মন্ত্রিসভা।

সচিব জানান, এদিন মন্ত্রিসভা ‘বাংলাদেশ পানি আইন, ২০১২’ এর খসড়ায় নীতিগত অনুমোদন এবং ‘আন্তর্জাতিক অপরাধ (ট্রাইব্যুনাল) (সংশোধন) আইন, ২০১২’, ‘কোড অব ক্রিমিনাল প্রসিডিউর (ফৌজদারি কার্যবিধি) (সংশোধন) আইন, ২০১২’ এবং ‘নিবন্ধন (সংশোধন) আইন, ২০১২’ এর খসড়ায় চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে।

এছাড়া জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল (ন্যাশনাল ইন্টিগ্রিটি স্ট্রাটেজি-এনআইএস) অনুমোদনের জন্য বৈঠকে উপস্থাপন করা হলেও তা আরো পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য ফেরত পাঠানো হয়েছে।

সাত দিনের মধ্যে এটি আবার মন্ত্রিসভায় উপস্থাপনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এমকে/জেকে/১৫৩৫ ঘ.