ক্যাটেগরিঃ bdnews24

 

ঢাকা, মে ২৯ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সাংবাদিকদের ওপর হামলায় জড়িত অভিযোগে গ্রেপ্তার তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য চার দিনের পুলিশ হেফাজতে (রিমান্ড) পাঠিয়েছে আদালত।

ঢাকার মহানগর হাকিম মো. এরফান উল্লাহ বুধবার ওই তিন জনের জামিন আবেদন খারিজ করে হেফাজত মঞ্জুর করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বনানী থানার উপ পরিদর্শক মুহাম্মদ ইমদাদুল ইসলাম তৈয়ব তিন আসামি জাহেদুল ইসলাম সৌরভ, ইলিয়াস মাস্টার সুমন ও মীর হোসেনকে আদালতে হাজির করে প্রত্যেককে ১০ দিন করে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি চান।

শুনানিতে রিমান্ডের পক্ষে যুক্তি দেন আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা পুলিশের উপ পরিদর্শক মো. ফরিদ মিয়া।

আসামিদের আইনজীবী হিসাবে এর বিরোধিতা করেন খন্দকার মাহাতাব হোসেন, মো. কামরুল হোসেন ও মওদুদ হোসেন বাপ্পী। তারা তিন আসামির জামিনেরও আবেদন করেন।

শুনানি শেষে বিচারক জামিন আবেদন খারিজ করে প্রত্যেকের জন্য চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

উপ পরিদর্শক মুহাম্মদ ইমদাদুল ইসলাম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, এ ঘটনার সঙ্গে যারা জড়িত তাদের অনেকের পরিচয় সম্পর্কে নিশ্চিত হয়েছে পুলিশ। তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

পুলিশ ছাড়াও র‌্যাব ও গোয়েন্দা পুলিশ এ ব্যাপারে কাজ করছে জানিয়ে ইমদাদুল জানান, চিহ্নিত কয়েকজন হামলাকারীকে গ্রেপ্তারে রাজধানীর বাইরেও অভিযান চালানো হচ্ছে।

গত ২৮ মে রাতে মহাখালীর আমতলীতে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম কার্যালয়ের নিচে একদল যুবক অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে এই অনলাইন সংবাদপত্রের সাংবাদিকদের ওপর হামলা চালায়। এতে ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হন তিনজন।

এরপর ওই রাতে অভিযান চালিয়ে মহাখালী এলাকা থেকে তিনজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের পক্ষ থেকে মঙ্গলবার দায়ের করা মামলায় তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

তিন আসামিকে মঙ্গলবার বিকালে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সামনে আনা হয়।

এ সময় আসামি জাহেদুল ইসলাম সৌরভ সংবাদ মাধ্যমের কর্মীদের ওপর হামলার কথা স্বীকার করেন এবং দাবি করেন, তিনি যুবলীগের কর্মী। তিতুমীর কলেজে ডিগ্রি প্রথম বর্ষে পড়ছেন বলেও দাবি করেন তিনি।

বাকি দুই আসামি ইলিয়াস মাস্টার সুমন ও মীর হোসেন হামলায় জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করে এলোমেলো বক্তব্য দেন সাংবাদিকদের সামনে।

হামলায় আহত সাংবাদিক নেওয়াজ মোহাম্মদ রিফাত, সালাউদ্দিন ওয়াহেদ প্রীতম এবং অফিসকর্মী রুহুল আমিন রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের কর্মীদের ওপর হামলার ঘটনায় সারাদেশে বিক্ষোভ, মানববন্ধনসহ নানা কর্মসূচি পালন করেছেন সংবাদ কর্মীরা।

মামলার আগামী শুনানির দিনে ঢাকা কোর্ট রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সব আইনজীবী সাংবাদিক বাদিপক্ষে শুনানিতে অংশ নেবেন বলে একটি ওকালত নামায় সই করেছেন, যা শিগগিরই আদালতে জমা দেওয়া হবে।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/পিবি/এলএইচ/জেকে/১৬০৫ ঘ.