ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

সংসদের বিরোধী দলীয় নেত্রী বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কিছু দিন পূর্বে একবার পবিত্র ওমরা হজ পালন করে নিজেকে পবিত্র করে এসেছিলেন। আগামী ৮ আগস্ট ১৯ শে রমজান রাতে সৌদি আরব যাচ্ছেন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলের নেতা ও বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

সৌদি গেলে খালেদার থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা করে কেডা ? সেখানে থাকাকালীন সময়ে তিনি সৌদি বাদশাহর মেহমান হিসেবে মদিনার রাজকীয় দারুল আমান প্রাসাদে অবস্থান করবেন দারুন খাতির। কিছু দিন আগে দশ দিন থাইক্যা আসলেন এখন আবার দশ দিনের জন্য।

তবে বিশ্বাস করি খালেদা জিয়ার রাজনীতি পশ্চিমা বিশ্বে খুব আরামের সাথে নেই। কেন যেন মনে হচ্ছে খালেদা জিয়ার জামায়াত কানেকশন শাপে বর হয়ে গেছে বিএনপির রাজনীতির জন্য। এই মুহূর্তে বিএনপি তথা খালেদা জিয়ার বাংলাদেশের রাজনীতিতে টিকে থাকতে হলে পশ্চিমা বিশ্বের সহযোগিতা ছাড়া কোনও উপায় নেই। পশ্চিমা বিশ্ব সবাইকে ছাড় দিয়ে দিতে পারে কিন্তু দক্ষিণ এশিয়ার জঙ্গিবাদ কে কন্ট্রোল রাখার স্বার্থে ধর্মীয় রাজনৈতিক দল গুলো বিষয়ে খুব ছাড় দিবে না বয়ে মনে হয়।

আর তাই এমন হওয়াটা অমৌলিক কিছু নয় বাংলাদেশের রাজনীতিতে বিএনপি কে টিকে থাকতে হলে জামায়াত কে সাথে রাখতে হবে। আর জামায়াত কে যদি সাথে রাখে তাহলে পশ্চিমা বিশ্বের সহযোগিতা বিএনপি পাবে না। পক্ষান্তরে মধ্যপ্রাচ্যে সৌদি আরব হলো পশ্চিমা বিশ্বের খুব পেয়ারী বান্দা। এখন সৌদি আরব কে যদি খালেদা মেনেজ করে পশ্চিমাদের একটু ফোন করিয়ে দিতে পারেন তাহলে আগামীতে সরকার কে চাপে রাখতে সুবিধে হবে। আর তাই খালেদা জিয়ার ঘন ঘন সৌদি আরব সফর।