ক্যাটেগরিঃ নাগরিক কণ্ঠ

পবিত্র রমজান মাসে ইফতারি ও সেহেরির সময় লোড শেডিং না করার জন্য খোদ প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত বিদ্যুত বিভাগকে নিদের্শ প্রদান করলেও অনেক স্থানে সেই নির্দেশনা মানা হচ্ছে না। অন্যদিকে দেশের সমস্ত কলকারখানা, অফিস-আদালত, গৃহস্থালিকে অন্ধকারে রেখে ঘন্টার পর ঘন্টা লোডশেডিং করা হলেও চট্টগ্রামে চাঞ্চল্যকর ভাবে বিদ্যুৎ বিভাগের একটি মহলের যোগসাজশে ৪টি প্রতিষ্ঠান পাচ্ছে অর্ধেক মূল্যে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ।

গত ৭ আগষ্ঠ চট্টগ্রাম-৮ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব নুরুল ইসলাম বিএসসি বিদ্যুৎ বিভাগের চট্টগ্রাম পূর্বাঞ্চলীয় উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় সভায় বিদ্যুৎ বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকতাদের উদৃতি দিয়ে জানায় যে, চট্টগ্রামের টিকে গ্রুপ, আবুল খায়ের গ্রুপ, আরএসআরএম গ্রুপ, পিএইচপি গ্রুপ ইত্যাদি প্রতিষ্ঠানের কারখানায় সার্বক্ষনিক বিদ্যুৎ সঞ্চালনের এক স্ববিরোধী পদ্ধতি চলমান আছে। এসব প্রতিষ্ঠান সার্বক্ষনিক বিদ্যুৎ সঞ্চালনের জন্য পিজিসিপি নামে একটি বিভাগ, যা দিয়ে উপযুক্ত প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে অন্যত্র বিদ্যুৎ সরবরাহ করে থাকে। এ অভিনব পদ্ধতি চালুর পেছনে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের কেউ না কেউ জড়িত। এই পদ্ধতির মাধ্যমে যে সব প্রতিষ্ঠান বিদ্যুৎ পাচ্ছে তারা বিস্ময়করভাবে প্রতি ইউনিট বিদ্যুতে ২ টাকার চেয়েও কম বিদ্যুৎ রাজস্ব দিচ্ছে। ১৩২কেবি বিদ্যুৎ সঞ্চালনে এই শুভঙ্করের ফাঁকিতে কিছু শিল্প প্রতিষ্ঠান কেন বাড়তি সুবিধা নিচ্ছে তা নিয়ে খোদ বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তাদের মধ্যেও প্রশ্ন দেখা দিলেও করনীয় বিষয়ে তাদের নিরবতা জনমনে সন্দেহ দেখা দিয়েছে। ক্যাব চট্টগ্রামের নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে এধরনের ঘটনার সাথে জড়িতদের কঠোর ও দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবী করেছেন….> বিস্তারিত

_______________
– জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচির (ইউএনডিপি) সহযোগিতায় বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা পপুলেশন সার্ভিসেস এন্ড ট্রেনিং সেন্টার (পিএসটিসি) এর তত্ত্বাবধানে সরকারি সেবার মানোন্নয়নে নাগরিক অংশগ্রহণ বৃদ্ধি করার উদ্দেশ্যে নাগরিক কণ্ঠ আত্মপ্রকাশ করে। বিডিনিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম ব্লগের সাথে প্রস্তাবিত চুক্তির আলোকে পর্যবেক্ষণ পর্যায়ে এই পোস্টটি শেয়ার করা হয়েছে।

– আপনার কমিউনিটির কোনো সংবাদ শেয়ার করতে চান? জানান আমাদের ফেসবুক গ্রুপে