ক্যাটেগরিঃ bdnews24

ঢাকা, জানুয়ারি ২৪ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- রাশিয়ার রাজধানী মস্কোয় দোমোদেদোভো বিমানবন্দরে আত্মঘাতী বোমা হামলায় অন্তত ৩৫ জন নিহত ও একশ’ ৩০ জনের বেশি আহত হয়েছে।

বিমানবন্দরের আন্তর্জাতিক অবতরণকেন্দ্রে বোমাটির বিস্ফোরণ ঘটে বলে জানিয়েছে বিবিসি। বোমাটি সাত কিলোগ্রাম ওজনের ট্রাইনাইট্রোটলুইনের সমান শক্তিশালী বলে ধারণা করা হচ্ছে।

রাশিয়ার তদন্ত কমিটির মুখপাত্র তাতিয়ানা মোরোজোভার বরাত দিয়ে সিএনএন জানায়, মস্কোর স্থানীয় সময় বিকাল সাড়ে ৪টায় সবচেয়ে বড় এবং ব্যস্ত— ওই বিমানবন্দরে হামলাটি হয়। মূলত বিদেশি শ্রমিক ও পর্যটকরা এ বিমানবন্দর ব্যবহার করে থাকে।

এ ঘটনার পর রাশিয়ার রাজধানী ও অন্য বিমানবন্দরগুলোতে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

রাশিয়ার উত্তর ককেশীয় অঞ্চলের স্বাধীনতাকামী ইসলামি জঙ্গিদের হামলার ধরনের সঙ্গে এ হামলার মিল রয়েছে বলে ধারণা করছেন বিশ্লেষকরা। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে তিনজনকে পুলিশ খুঁজছে বলে জানিয়েছে রাশিয়ার স্থানীয় বার্তাসংস্থাগুলো।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেভ জানিয়েছেন, বিস্ফোরণের ঘটনা তদন্তে কমিটি করা হবে।

তিনি বলেন, “আগেও এরকম ঘটনায় আমরা যথাযথ আইনী পদক্ষেপ নিয়েছি। এখন দেখতে হবে সেগুলোর প্রয়োগ ঠিকমতো হয়েছে কি না।”

“কিছু ফাঁকফোকর অবশ্যই থেকে গেছে,” বলেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট।

মস্কোর অন্যান্য বিমান বন্দর এবং পরিবহন স্টেশনগুলোতে নিরাপত্তা বাড়ানোরও নির্দেশ দিয়েছেন মেদভেদেভ।

২০১০ সালের মার্চে মস্কোর সুড়ঙ্গ পথে দাগেস্তান অঞ্চলের দুই নারী আত্মঘাতী বোমা হামলা চালালে ৪০ জন নিহত হয়। ওটাই ছিলো গত ছয় বছরের মধ্যে রাশিয়ায় সবচেয়ে সহিংস হামলা।

ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে করে বিস্ফোরণের আগে বিমানবন্দরে পৌঁছান ব্রাইটন মার্ক গ্রিন নামে এক যাত্রী। তিনি জানান, বিস্ফোরণের সময় বহির্গমন অংশে মালপত্র নিতে কয়েক হাজার যাত্রী অপেক্ষা করছিলেন।

বিস্ফোরণের পর দোমোদেদোভো বিমানবন্দরে সব ধরনের বিমান চলাচল বন্ধ রয়েছে। এ বিমানবন্দরের উদ্দেশ্যে বিশ্বের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা বিমানগুলো মস্কোর শেরেমেতেভো বিমানবন্দরে অবতরণ করছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বিস্ফোরণের এ ঘটনাকে সন্ত্রাসবাদের চরম প্রকাশ হিসেবে অভিহিত করে এর নিন্দা জানিয়েছেন। নিহত ও আহতদের পরিবারের প্রতি ব্রিটিশ সরকারের পক্ষ থেকে সমবেদনা জানিয়েছেন ব্রিটেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী উইলিয়াম হগ।