ক্যাটেগরিঃ গ্লোবাল ভয়েসেস

 

পাকিস্তান টেলি যোগাযোগ মন্ত্রণালয় বা পিটিএ (পাকিস্তান টেলি কমিউনিকেশন অথরিটি) প্রচার মাধ্যমের নিবেদিত প্রাণ ব্যক্তি এবং মানবাধিকার সংস্থার মনোযোগের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে। পিটিএ, মোবাইলে মেসেজ পাঠানোর ক্ষেত্রে কিছু কিছু অশ্লীল শব্দের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করার জন্য একটি তালিকা প্রস্তুত করে। যখন বাছাইকৃত শব্দের এই তালিকার মত এক কুখ্যাত বিষয় উন্মোচন হয়ে পড়ে তখন এই ঘটনা ঘটে। এই তালিকায় যে সব শব্দ রয়েছে, সে গুলো হচ্ছে, “ডু ইট”, “টাঙ্গ”, “জেসাস ক্রাইস্ট”, “টাম্পন”, “পিরিয়ড”, “শয়তান”, “ মাঙ্কি ক্রাউচ”, “ডিপোজিট” এবং “ফেইরী”। এছাড়াও ‘এফ’ শব্দ দিয়ে শুরু হয় এমন ৫০ টা ভিন্ন ভিন্ন শব্দ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এর সাথে ‘বাডওয়াইজার’ এবং ‘লুণ্ড’ নামক শব্দটি নিষিদ্ধ। [এ সব শব্দ শারীরিক মিলন, বিশেষ অঙ্গ, ধর্মীয় বর্ণনায় ব্যবহৃত হয়]

এই ঘটনায় পিটিএ এক হাসির পাত্রে পরিণত হয়। প্রথমে অনেকে মনে করেছিল যে এটা একটা ভুয়া তালিকা। এই তালিকায় ৫৮৬ টি উর্দু, ১,১০৯ টি ইংরেজী শব্দ এবং বাগধারা রয়েছে। ১৪ নভেম্বর ২০১১ তারিখে পিটিএ এই তালিকা দেশটির সব মোবাইল কোম্পানীর কাছে পাঠিয়ে দেয়।

সূত্র বলছে যে মোবাইল সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান সমূহকে আগামী সাত দিনের মধ্যে স্পাম থেকে ইন্টারনেট রক্ষা, অবাঞ্ছিত, প্রতারণ এবং অশ্লীল বার্তা বিষয়ক যোগাযোগ আইন ২০০৯ অনুসারে এই সমস্ত শব্দসমুহকে নিষিদ্ধ করার আদেশ প্রদান করা হয়েছে। এই বিষয়ে পিটিএ-এর পাঠানো চিঠিতে বলা হয়েছে যে মোবাইল কোম্পানীগুলো এই নিষেধাজ্ঞা প্রয়োগের ব্যাপারে তাদের মাসিক রিপোর্ট পিটিএকে প্রদান করবে। তবে মোবাইল কোম্পানীগুলো এই নিষেধাজ্ঞা প্রয়োগ করা থেকে আপাতত বিরত থেকেছে।

….>বিস্তারিত