ক্যাটেগরিঃ প্রিয়

 

(প্রিয় টেক) গত ৯ ডিসেম্বর ২০১১ তারিখে প্রিয় সম্পাদক জাকারিয়া স্বপন বাংলাদেশের স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রীদের মাঝে বিনামূল্যে ল্যাপটপ বিতরনের লক্ষ্যে পুরনো ল্যাপটপ সংগ্রহের একটি আবেদন জানান (আমার জন্মদিনে আপনার উপহার, একটি ভাঙ্গা ল্যাপটপ)। মূল আইডিয়াটি হলো – যাদের কাছে পুরনো ভাঙ্গা/নষ্ট ল্যাপটপ আছে সেগুলোকে যোগাঢ় করে, বিভিন্ন পার্টস লাগিয়ে ঠিক করে পরবর্তীতে বিভিন্ন স্কুল/কলেজের ছাত্রছাত্রীদের মাঝে বিনামূল্যে বিতরন করা হবে। এই আহ্বানে অভাবিত রকমের সাড়া পাওয়া গিয়েছে।

জাকারিয়া স্বপনের হাতে প্রথম ল্যাপটপটি তুলে দিচ্ছেন সাদিক আলম

অসংখ্য মানুষ তাদের পুরনো ল্যাপটপটি আমাদেরকে দান করার পাশাপাশি বিভিন্নভাবে সহযোগিতার হাত প্রসারিত করেছেন। আপনাদের ভালোবাসায় আমরা শিক্ত। আপনাদের সকলের সাহায্যে আমরা বাংলাদেশে অসংখ্য স্কুল/কলেজে ল্যাপটপ দিতে পারবো বলে আশা করছি।

যদিও চিন্তাটি এসেছে একজন মানুষের মাথা থেকে, কিন্তু আমরা এখন এটাকে একটি প্রসেসের ভেতর নিয়ে আসতে চাইছি; এবং পরবর্তিতে ধীরে ধীরে এটাকে একটি প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দেয়া যেতে পারে। সেই লক্ষ্যে আমরা এই পেজটি তৈরী করেছি। এটাই হবে “ল্যাপটপ ব্যাংক”-এর ডিফল্ট ওয়েব পেজ। এই পেজ থেকেই আপনারা যাবতীয় আপডেট পাবেন।

আপনারা যারা আমাদের কাজে সহযোগিতা করতে চান, তারা দয়া করে এই পেজটি অন্যদের সাথে শেয়ার করার অনুরোধ থাকলো।

আজই (১১ ডিসেম্বর ২০১১) আমরা একটি পুরনো ল্যাপটপ হাতে পেয়েছি। “তোশিবা” ল্যাপটপটি দিয়েছেন সাদিক আলম। এই ল্যাপটপটি দিয়ে তিনি এই কার্যক্রমের ইতিহাস তৈরী করলেন। আমরা তার এই অবদানের কথা মনে রাখবো।
পুরনো ল্যাপটপ পাঠানোর ঠিকানা:

প্রিয় ল্যাপটপ ব্যাংক
প্রিয়.কম
বাড়ি # ৬৭/বি, সড়ক # ১৫/এ
ধানমন্ডি আ/এ, ঢাকা-১২০৯
বাংলাদেশ
ই-মেইল: tech@priyo.com

অফিস চলাকালিন সময়ে যে কেউ ল্যাপটপ জমা দিয়ে যেতে পারেন। তবে কেউ যদি কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে ল্যাপটপ পাঠাতে চান, তাহলে উপরের ঠিকানাটি ব্যবহার করতে পারেন।

…..>বিস্তারিত