ক্যাটেগরিঃ গ্লোবাল ভয়েসেস

 

ব্লগার ও নেটিজেনদের গ্রেফতার ও নির্যাতনের ক্ষেত্রে আরব বিশ্বের সুনাম আছে, সুনির্দিষ্ট ভাবে বলতে গেলে ১৪ ফেব্রুয়ারি গণজাগরণের পর থেকে বাহরাইন ও এর ব্যতিক্রম নয়। বাহরাইনি চিকিৎসকেরা যেভাবে টুইটার ব্যাবহার করে কারারক্ষীদের যে সব অত্যাচার ও অনাচার প্রত্যক্ষ করেছেন তা বিশ্ববাসীর সামনে যেভাবে তুলে ধরেন সেভাবে নেজরাদ (@নেজরাদ) ছদ্মনামের একজন টুইটার ব্যাবহারকারী গত কয়েক দিনে তাঁর কারা অভিজ্ঞতার কথা বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরেছেন।

১৪ ফেব্রুয়ারি প্রতিবাদ সমর্থনে সামাজিক প্রচারমাধ্যমের লোগো।

১৪ ফেব্রুয়ারি প্রতিবাদ সমর্থনে সামাজিক প্রচারমাধ্যমের লোগো। ছবি সৌজন্য- জনগণ

নাজরেদ এর মতে তার টুইট বার্তির কারনে তিনি গ্রেফতার হয়েছেন, তিনি তাঁর নতুন আপডেটে জানিয়েছেন যে তিনি ঘটনাটি সবাইকে জানাতে চান [ আরবি ভাষায়]:
بسبب بضع كلمات في تويتر تم أعتقالي وتكبيلي وتعصيب عيني واستجوابي لـ 5 ساعات عانيت فيها من التقييد والعطش والشتائم والوقوف على رجلي دون جلوس
@নেজরাদ: টুইটারে কিছু বাক্য লেখার জন্য আমাকে গ্রেফতার করা হয়, শেকল পরানো হয় এবং পাঁচ ঘণ্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। শিকল পরানোর কারনে, তৃষ্ণায়, অপমানে, এবং বসতে না দিয়ে দাড় করিয়ে রাখায় আমি অনেক দুর্ভোগ পোহাই।

তিনি তাঁর অগ্নিপরীক্ষার বিষয়ে বিস্তারিত বর্ণনা করেনঃ
قبل بدأ التحقيق في النعيم أتى رجل وسألني بلهجة يمنية:ماهي تهمتك؟ أين تعمل؟ ما هذه البدلة التي تلبسها؟ ثم جرني ومزق البدلة وصفعني ثم بصق علي

@নেজরাদঃ জিজ্ঞাসাবাদের শুরুতে এক লোক এসে ইয়েমেনি উচ্চারনে আমাকে জিজ্ঞেস করল : “ তোমার বিরুদ্ধে অভিযোগ কি? তুমি কোথায় কাজ কর? তুমি কি স্যুট পরেছ?” এরপর সে আমাকে টেনে নিয়ে স্যুট ছিঁড়ে ফেলে, আমাকে থাপ্পড় মারে এবং থু থু ছুড়ে মারে।

…………>বিস্তারিত