ক্যাটেগরিঃ গ্লোবাল ভয়েসেস

 

আজ সিরিয়া-জর্ডান সীমান্তে সিরীয় কর্তৃপক্ষ ব্লগার রাজান ঘাজ্জাউয়িকে গ্রেফতার করেছে। যখন ঘাজ্জাউয়িকে গ্রেফতার করা হয়, সে সময় ভদ্রমহিলা আরব বিশ্বে সংবাদপত্রের স্বাধীনতা বিষয়ক এক কর্মশালায় যোগ দেবার জন্য জর্ডানের রাজধানী আম্মানের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিল। ঘাজ্জাউয়ির গ্রেফতারের ঘটনায় সারা বিশ্বের ব্লগার এবং একটিভিস্ট সমালোচনায় মুখর এবং ক্ষোভে ফেটে পড়েছে।

ঘাজ্জাউয়ি হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রে জন্মগ্রহণকারী এক সিরীয় ব্লগার এবং একনিষ্ঠ টুইটার ব্যবহারকারী, যিনি গ্লোবাল ভয়েসেস অনলাইন এবং গ্লোবাল ভয়েসেস অ্যাডভোকেসি উভয় সাইটে লিখে থাকেন। তিনি হচ্ছেন সেই সমস্ত অল্প সংখ্যক নাগরিকদের মধ্যে অন্যতম, যারা তাদের প্রকৃত নামে লিখে থাকে, সেখানে তিনি ব্লগার এবং যে সমস্ত একটিভিস্টকে সিরীয় সরকার গ্রেফতার করেছে, এবং একই সাথে পুরুষ সমকামী ও সংখ্যালঘুদের অধিকারের দাবিতে সোচ্চার।

যখনই রাজানের গ্রেফতারের সংবাদ ছড়িয়ে পড়ে সাথে সাথে তার সমর্থকরা রাজানকে মুক্ত কর নামের একটি পোস্টার নেটে উঠিয়ে দেয়।

তার সর্বশেষ পোস্ট ১ ডিসেম্বর ২০১১ তারিখে প্রকাশিত হয়। এটি মূলত সিরিয়ার ব্লগার হুসাইন ঘেরের মুক্তি উদযাপন উপলক্ষ্যে পোস্ট করা হয়। হুসাইন ঘেরের-কে সিরীয় সরকার ৩৭ দিন আটকে রেখেছিল। রাজান ব্লগে লিখেছিল:

হুসাইন আজ রাতে তার ঘরে ফিরে যাবে, যেখানে সে তার স্ত্রীকে জড়িয়ে ধরবে, এবং আর কখনো দুটি মুল্যবান সঙ্গীতকে হারিয়ে যেতে দেবে না। এখন সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে, এবং শীঘ্রই সব সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

পরিহাসের বিষয়টি নেট নাগরিকরা উপলব্ধি না করে পারেনি, যারা তার গ্রেফতারের পর সামাজিক প্রচার মাধ্যমে এই গ্রেফতারের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলেছে

সিরিয়ার রাজান সাফোর টুইট করেছে:

@রাজানস্পিকস:রাজান ঘাজ্জাউয়ি, গ্রেফতারকৃত নাগরিকদের ব্যাপারে সচেতনতা তৈরিতে সচেষ্ট ছিল, সে তাদের সম্বন্ধে লিখত এবং তাদের সমর্থন করত। ঘাজ্জাউয়ি এখন নিজে তাদের একজনে পরিণত হল। #ফ্রিরাজন#সিরিয়া

…………….>বিস্তারিত