ক্যাটেগরিঃ গ্লোবাল ভয়েসেস

২৩ ডিসেম্বর, ২০১১ তারিখে, আকস্মিক এক বৃষ্টির ফলে সিঙ্গাপুরের বিভিন্ন স্থানে বন্যার সৃষ্টি হয়, যার মধ্যে জনপ্রিয় জনপ্রিয় বাজার এলাকা অরচার্ড রোড অন্যতম। এটা না ছিল বিস্ময়কর, না ছিল অনাকাঙ্খিত কোন ঘটনা, বিশেষ করে ২০১০-এর জুনে প্রথমবার এই রকম ঘটনা ঘটার পর থেকে, এ রকম ঘটনা প্রায় স্বাভাবিক বাস্তবতায় পরিণত হয়েছে।

লিয়াট টাওয়ার নামক উচ্চ ভবন নির্মাণ চলছে, যা কিনা এর আগে এরকম ঘটনার শিকার হয়েছিল, এটি তার বন্যা প্রতিরোধ ব্যবস্থা সচল করে, কিন্তু তার পরেও বন্যার পানি এর ভিত্তিস্তরে এসে জমা হতে থাকে। এক পর্যায়ে তা হাটু সমান হয়ে পড়ে। ওয়েন্ডিস এবং স্টারবাকের মত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান-এতে দারুনভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়।

তবে সিঙ্গাপুরের গণ উন্নয়ন সংস্থা (পাবলিক ইউটিলিট বোর্ড বা পাব) এই ঘটনায় বিবৃতি প্রদান করেছে যে, “অরচার্ড রোড নামক এলাকায় কোন বন্যা হয়নি, কিন্তু এই সমস্ত পানি লিয়াট টাওয়ার এবং এ রকম নীচু এলাকায় পুকুরের সৃষ্টি করেছে:

কোন কোন জায়গায় এই সমস্ত এলাকায় বন্যার পানি ৩০ সেন্টিমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পয়েছিল এবং সাধারণত এক ঘণ্টার মধ্যে তা নেমে যায়, তবে ক্যামব্রিজ রোড, নিউটন সার্কাস এবং মুলিমিন রোড ইউনাইটেড স্কোয়ার–এর সামনে থম্পসন রোড এলাকায় সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে পানি সরে যায়। আক্রান্ত এই সমস্ত এলাকা প্রধানত নিচু এলাকা।

অরচার্ড রোডে কোন বন্যা হয়নি। তবে লিয়াট টাওয়ার-এর উন্মুক্ত স্থানে, লাকি প্লাজা এবং এনজি আন সিটির মাঝখানের ভূগর্ভ্যস্থ এলাকা এবং লাকি প্লাজার উন্মুক্ত স্থানে ভারী বৃষ্টির পানি জমে পুকুরের সৃষ্টি হয়।

….>বিস্তারিত

মন্তব্য ০ পঠিত