ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

বেটাদের সাহস কতো! সরকারি দলের নেতাদের সঙ্গে পরামর্শ না করেই সভা! এও সম্ভব? যাদের দাপটে দেশের মানুষ তটস্ত, তাদের না ডেকে সভা, এটা তো হতে পারে না। এটা হতে পারে না বলেই সভা পন্ড করে দিয়েছে আওয়ামী লীগের নেতারা। আওয়ামী লীগ নেতার সাফ জবাব, “আমাদের সরকারের সময়ে আমাদের সঙ্গে আলোচনা ছাড়াই এ ধরনের সভা ডাকা হয়েছে। তাই আমরাও সভা করেছি।” ফলাফল যা হওয়ার তাই হয়েছে। ১৪৪ ধারা।

প্রকাশিত খবরে দেখা যায়, নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার সাত গ্রামের মানুষেরা দলমত-নির্বিশেষে একত্রিত হয়ে এলাকার উন্নয়ন কাজ করে থাকেন। এর জন্য তারা কোনো সরকারি অনুদানের অপেক্ষায় থাকেন না, নিজেরা চাঁদা তুলেই সে কাজ করে থাকেন। এই কারণে স্থানীয় লোকজন স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে কাজ করে থাকেন।

এই বছরের উন্নয়ন কাজের পরিকল্পনা করার জন্য এই সাত গ্রামের মানুষ গত ১ এপ্রিল স্থানীয় হোসেনপুর এসপি ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ে একটি সভা ডাকে। কিন্তু যেহেতু এই সভায় আওয়ামী লীগ নেতাদের ডাকা হয়নি তাই আওয়ামী নেতারাও একই স্থানে একই সময়ে সভা ডেকে বসেন। আর এর জের ধরেই ওইখানে ১৪৪ ধারা জারি করে দেয় প্রশাসন। এ ব্যাপারে সাত গ্রাম উন্নয়ন কমিটির আহ্বায়ক ইদ্রিস আলী ভূঁইয়া বলে, এলাকার উন্নয়নের জন্য আমরা প্রতি বছরই সভা করে থাকি। কিন্তু আওয়ামী লীগ অন্যায়ভাবে সেই সভা বাতিল করে দিয়েছে। ১৪৪ ধারা জারি করার পর সাত গ্রামের মানুষ এই ঘটনার প্রতিবাদে নিজ নিজ গ্রামে প্রতিবাদ মিছিল করেছে।