ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

 

প্রথমেই আমার নিজের করা মন্তব্য দিয়ে শুরু করছি:

§[১]

আমি বলেছি:

জেমান, সমস্যা কি জানেন, আদর্শবান ভালো নেতার অভাব; লীগ, বি.এন.পি বলে কথা না!
জানেনই তো আমি জিনিয়ার পোস্টে একবার বলেছিলাম:

এটার সমাধান আছে। একবারে নির্মূল করা যাবে না কিন্তু অনেক অনেক কমানো যাবে।

ধর্মীয় মূল্যবোধে বিশ্বাসী একটি দেশের জন্য:
১) নিজ নিজ ধর্মীয় মূল্যবোধে বিশ্বাসী হতে হবে ও মেনে চলতে হবে । [ *প্লিজ জিনিয়ার মত শুধু ইসলাম কে টেনে আনবেন না, সব ধর্মেই ভালো মূল্যবোধের কথা বলা হয়েছে, কিন্তু মেনে চলেই বা কয়জন!]
২) ছেলে-মেয়ে উভয় কেই পর্দাশীল হতে হবে। [*পর্দাশীল বলতে বোরকা বা ঝালুম ঝুলুম পোশাক বোঝানো হয় নি, শালীন পোশাক বোঝানো হয়েছে]
৩) ছেলে-মেয়ে উভয় কেই প্রাপ্ত বয়স্ক হলেই বাবা মা র কর্তব্য বিয়ে দিয়ে দেওয়া। বিয়ের ক্ষেত্রে যৌতুক, মোহরানা, বিয়ের খরচ বাদ/কমানো চিন্তা করতে হবে।
৪) কঠোর আইনের সুষ্ঠ বাস্তবায়ন। অপরাধ করলে টপ লেভেল থেকে রুট লেভেল কেউ যেন ফাক ফোকর দিয়ে বেরিয়ে যেতে না পারে।
৫) সর্বপরি নিজেকে সতর্ক রাখতে হবে। সবসময় আল্লাহপাকের কাছে হিফাজত চাইতে হবে।

আর যে দেশে ধর্মীয় মূল্যবোধ নাই, সেই দেশে উপরের ৩ টি ( ৪ ও ৫ ব্যাতীত) বাস্তবায়ন সম্ভব না (* শুধরায়ে দিলাম যদিও এর আগে আমার এই মন্তব্যের কেউ ভুল ধরেন নি)। তাই ফ্রি কান্ট্রি এর নিয়মে যেতে হবে।আর ফ্রি দেশের জন্য আমার চোখে দেখা জার্মানি কে উদাহরণ হিসাবে হতে পারে। জানই তো, এখানে ছেলে-মেয়ে উভয়ের ইচ্ছায় হলে কোনো কিছু হবে না। জোর করে হলে কোন মাফ নাই। হোক সে টপ লেভেল হোক সে মন্ত্রী আমলা প্রফেসর। শাস্তি পাবেই।

দুটি ক্ষেত্রেই ‘কঠোর আইনের সুষ্ঠ বাস্তবায়ন’ খুবই গুরত্বপুর্ন। আর এটি করার জন্য একজন আদর্শবান নির্ভিক নেতা দরকার। উনি লীগ -বি.এন.পি যাই হোক না কেন।

তাই চিত্কার দিয়ে বলে উঠতে চাই:

ধর্ষণ প্রতিরোধে কঠোর আইনের সুষ্ঠ বাস্তবায়ন হোক

[১]

***

§[২]

আমার মন্তব্যের প্রথম ক্ষেত্রের শর্ত ১) এর সম্পূর্ণ দ্বিমত পেষণ করে একজন সম্মনিত ব্লগার পরাজিত মধ্যবিত্তের একজন বলেছেন:

”ধর্মীয় মূল্যবোধ মোটেই প্রয়োজন নয়। বরং ক্ষতিকর। নিতান্তই অপ্রয়োজনীয়।
যেখানে পরোকালে হুরপরীদের সঙ্গে অবাধ যৌনাচারণের কথা বলে পরোক্ষভাবে নারীকে ভোগের বস্তু হিসেবে উপস্থাপন করে-সেই মূল্যবোধ নাকি ধর্ষণ প্রতিরোধ করবে?? হা..হা..হা..হা.।

মুক্তিযুদ্ধের সময় জামায়াতপন্থী ধার্মিকেরা নারীদের গণিমতের মাল হিসেবে ধর্ষণ করেছে। মাদ্রাসায় ধর্ষণ ও বলাৎকারের ঘটনা কম ঘটে না। মসজিদে হুজুর কর্র্তৃক ধর্ষণের নজির ও যথেষ্ট রয়েছে। ” [২]

***
______________________________

তথ্যসূত্র ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ:

[১] আসাদুজজেমান, বিষধর সাপতত্ব ছাপিয়ে অসভ্য পাঁঠাতত্ব, জাফরুল মন্তব্য ৯, বিডি নিউজ ২৪ ব্লগ। (হাইপার লিংক: দেখেছি ১৯-০১-২০১৩)
[২] সাখাোয়াত হোসেন, আসুন ধর্ষণকারীদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হই, পরাজিত মধ্যবিত্তের একজন মন্তব্য ১০,বিডি নিউজ ২৪ ব্লগ। (হাইপার লিংক : দেখেছি ২০-০১-২০১৩)

_____________________________________
মন্তব্যকারীদের প্রতি বিশেষ ভাবে মনে করে দিচ্ছি অবশ্যই বিডি নিউজ ২৪ ব্লগ নিয়মাবলী মেনে মন্তব্য করবেন।
নিয়মাবলীর দিকে একটু চোখ বুলিয়ে নিন….। ***

আপনি এই ব্লগে নিজে থেকেই লেখা মন্তব্য, ফটো ও ভিডিও প্রকাশ করতে পারবেন। আমরা কেবল নিচের পাঁচটি প্রধান বিষয়ে রাষ্ট্রের প্রচলিত আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকতে অনুরোধ করি। এর অর্থ আপনি নিম্নলিখিত বক্তব্য/আচরণ প্রদান/প্রদর্শন ও প্রচার বা সংগঠন করতে পারবেন না।

১. রাষ্ট্রবিরোধীতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার অবমাননা

২. ধর্মকে অশ্লীলভাবে আক্রমন

৩. পর্ণগ্রাফিক ছবি বা লেখা

৪. ব্যক্তির প্রতি অশ্লীল আচরণ

৫. মেধাস্বত্ব চুরি

*** কৃতজ্ঞতা প্রকাশ: সম্মানিত বিডি নিউজ ২৪ ব্লগপোষকগণ। (হাইপার লিংক: দেখেছি ১৯-০১-২০১৩)
______________________________________

মাননীয় ব্লগটিম,

সময়ের সাথে সাথে ইনশাল্লাহ পোস্টটি আপডেট করব তথ্যসূত্র দিয়ে। কারণ কোন মন্তব্য, ব্লগার ও মন্তব্যকারী বিডি নিউজ ২৪ ব্লগে একবার লিখে ফেললে, নিজ থেকে আর বদলাতে পারেন না। তাই যদি পোস্টটি সময়ের সাথে আপডেট করি মানে শুধু বিভিন্ন পোস্ট থেকে বিভিন্ন মন্তব্য গুলো যুক্ত করি , তবুও পোস্টটির মৌলিকতা অক্ষুন্ন থাকবে ও তথ্যসূত্রের মাধ্যমে মন্তব্যকারীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা হবে। আগ্রহী পাঠকদের জন্য বিশ্লেষণটি হবে এই পোস্টে মন্তব্যে মন্তব্যে ফাইট দিয়ে।

-ইতি
বোতল বাবা
জার্মানি, ১৯.০১.২০১৩ ইং।