ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

বহুল আলোচিত ও নির্যাতনের অভিযোগে অভিযুক্ত পুলিশ অফিসার যখন থানা পুলিশ কর্তৃক মানবাধিকারকর্মী ও আইনজীবীকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছনার [১, ২, ৩, ৪,] অভিযোগে গঠিত তদন্ত কমিটির সদস্য হয়, তখন সেই তদন্তের ভবিষ্যৎ কি হবে তা সহজে অনুমানীয়। তদন্ত কমিটির সদস্য পুলিশ অফিসারটি আর কেউ নয়, জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় চীফ হুইপ ও সংসদ সদস্য জয়নাল আবেদীন ফারুককে মানিক মিয়া এভিন্যুতে নির্মমভাবে নির্যাতন করে বহুল আলোচিত বর্তমানে ঢাকা মহানগর পুলিশের তেজগাঁও জোনে কর্মরত এডিসি বিপ্লব বিশ্বাস।

জাষ্টিসমেকার্স বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা মহাসচিব এবং বাংলাদেশ বার কাউন্সিল ও ঢাকা বার এসোসিয়েশনের সদস্য অ্যাডভোকেট শাহানূর ইসলাম পুলিশের বিরুদ্ধে সাধারন ডায়েরী করতে চাওয়ায় মোহাম্মদপুর থানা ডিউটি অফিসারের কে এসআই মোহাম্মদ ইউসুফ কর্তৃক তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছনাপূর্বক গ্রেফতারের চেষ্টার অভিযোগে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন [] কর্তৃক নির্দেশিত হয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয় কর্তৃক গঠিত উচ্চ মতা সম্পন্ন তদন্ত কমিটির একজন সদস্য এই বহুল আলোচিত ও অভিযুক্ত নির্যাতনকারী পুলিশ অফিসার। তিন সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটির অন্য দু’জন সদস্য হলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের উপসচিব ( ইমিগ্রেশন এবং পাসপোর্ট) জনাব মো: সলিমুল্লাহ ও মানবাধিকার সংগঠন নাগরিক উদ্যোগের প্রধান নির্বাহী জনাব জাকির হোসেন। গত ২৪/০৬/২০১২ ইং তারিখে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব মাকসুদা ইয়াসমিন এর স্বারে গঠিত উক্ত কমিটিকে বিষয়টি যথাযথ তদন্তপূর্বক আগামী ২৪ জুলাই ২০১২ ইং তারিখের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় কমিটি আজ অভিযোগকারী অ্যাডভোকেট শাহানূর ইসলাম এবং অভিযুক্ত পুলিশ অফিসার এসআই মোহাম্মদ ইউসুফের বক্তব্য লিপিবদ্ধ করেন এবং আগামী ১৮ জুলাই ২০১২ ইং তারিখে সাক্ষীদের বক্তব্য গ্রহণের দিন ধার্য করেন।