ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

 

টিভি খুললেই চোখে পড়ে কান্না চোখে হাসি মাখা এক মুখ। কাজের কাজ হক আর না হক কথার ফোয়ারা ছুটাইতে পটু। তিনি আর কেউ নয় আমাদের সবার শ্রদ্ধেয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান সাহেব। নির্যাতন,বিনাবিচারে হত্যা, গুমসহ অধিকাংশ বিষয়ে যার মনোমুগ্ধ বক্তব্য পরান ছুঁয়ে যায়। যার কথা শুনে মনে হয় এই বুঝি দেশ থেকে মানবাধিকার লঙ্ঘনজনিত ঘটনার পরিসমাপ্তি হল। কিন্তু মোহভঙ্গ হয় তখনি যখন তার কথা শুধু লোক দেখানো আর আম জনতার সাময়িক বাহবা পাওয়ার জন্য প্রমাণিত হয়। সরকার শুনেও শোনে না, দেখেও দেখে না। আর কমিশনও সব বুঝে না বুঝার ভান করে থাকে। ফলশ্রুতিতে সম্মানজনক পদ, বেতন, বিদেশ ভ্রমণ আর পত্রিকা, টেলিভিশনে মুখ দেখানোর সুযোগ। কে বঞ্চিত হতে চায় এমন সুযোগ থেকে? তাইত দিনে দিনে মানবাধিকার লঙ্ঘনজনিত ঘটনা বৃদ্ধি পেলেও কমিশনের কার্যকর কোন পদক্ষেপ নেই। শুধু বক্তব্য আর মাঝে মাঝে সরকারের নিকট তদন্তভার অর্পন করার মাঝেই তার সকল কার্যক্রম সীমাবদ্ধ। তাহলে কি প্রয়োজন ছিল এই কমিশনের? তবে কি আন্তর্জাতিক কর্তৃপক্ষকে বোকা বানিয়ে সরকারের স্বার্থ দেখায় এ অথর্ব কমিশনের কাজ!!!!!