ক্যাটেগরিঃ ধর্ম বিষয়ক

 

ইসলাম ধর্মাম্বলীদের জন্য হজ্জ একটি আবশ্যকীয় বা ফরয উপাসনা। এটি ইসলামের ৫ম স্তম্ভ। আচার ও আদব-কায়দার বিবেচনায় হজ্জ হলো বৎসরের নির্দ্দিষ্ট দিনে নির্দ্দিষ্ট পোশাকে কয়েকটি স্থানে অবস্থান বা ওকুফ,কাব্বা শরীফের তাওয়াফ, পশু কোরবানী, নির্দ্দিষ্ট স্থানে পরপর ৩দিন কংকর নিক্ষেপ এবং সাফা-মারওয়া টিলাদ্বয়ের মধ্যে হাঁটা। শারীরিক ও আর্থিকভাবে সক্ষম প্রত্যেক মুসলমান নর-নারীর জন্য জীবনে একবার হজ্ব সম্পাদন করা ফরয বা আবশ্যিক। হজ্জ পালনের জন্য বর্তমান সৌদী আরবের মক্কা নগরী এবং সন্নিহিত মিনা, আরাফাত, মুযদালফা প্রভৃতি স্থানে গমন এবং অবস্থান আবশ্যক। এটি পৃথিবীর সবচেয়ে বড় বাৎসরিক তীর্থযাত্রা।

মোহাম্মদ (সা), হজ্জ পালন ও তাবলিগ জামাত সম্পর্কে নিজের মতামত দেয়ায় বর্তমান সরকারের একজন প্রবীন মন্ত্রীর বিচার দাবী করছে হেফাজতে ইসলাম, বিএনপিসহ অনেক গোষ্ঠী। কিন্তু প্রশ্ন হল কেন তার ব্যক্তিগত মত নিয়ে সবায় এত উদবিগ্ন? তবে কি কেউ কোন বিষয়ে নিজস্ব মত/ চিন্তা/ চেতনা প্রকাশ করতে পারবে না? কিন্তু কেন? যেখানে আমাদের মহান সংবিধানসহ মানবাধিকারের সকল দলিল প্রত্যেক নাগরিকের মত প্রকাশের স্বাধীনতা নিশ্চিত করেছে। নাকি শুধু মাত্র ধর্মীয় বিষয় নিয়ে মত প্রকাশ করা যাবে না ( যদি তা প্রচলিত ধর্মীয় আচারের বিরুদ্ধে যায়)।

মন্ত্রী সাহেবের বক্তব্যে মনে হয় না ত কাউকে হজ্জ সহ অন্যান্য ধর্মীয় আচার পালন করা থেকে বিরত থাকার আহবান জানানো হয়েছে। শুধু মাত্র হজ্জের সাথে উৎপাদন/অনুৎপাদন ক্ষাতের একটি তুলনা করে তাঁর ব্যক্তিগত মত প্রকাশ করেছে। তাতেই কি আমরা আহত হয়ে মৃতপ্রায় অবস্থায় পৌছেছি যে মন্ত্রীকে গ্রেফতার করে বিচার দাবী করছি এবং আন্দোলনের ঘোষনা দিচ্ছি।

আমাদের ধর্মীয় অনুভুতি কি এতটাই ঠুংকু যে আমরা কথায় কথায় আহত হই!!!!!!