ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

 

যৌন ব্যবসায় পরিচালনার আড়ালে সেক্স ট্রাফিকিং এ যুক্ত সংঘবদ্ধ চক্রের কার্যক্রমের প্রতিবাদে গত ১৩ অক্টোবর ২০১৬ ইং তারিখে ব্লগস্পটেঃ ফেসবুকে যৌন ব্যবসার রমরমা প্রচারণা: প্রশাসন কোথায়? সামু ব্লগেঃ ” অনলাইনে যৌন ব্যবসার প্রচারণার আড়ালে সেক্স ট্রাফিকিং: প্রশাসন নির্বিকার!” , বিডি ব্লগেঃ ফেসবুকে যৌন ব্যবসার রমরমা প্রচারণা: প্রশাসন কোথায়?, ইস্টিশন ব্লগেঃ ফেসবুকে যৌন ব্যবসার রমরমা প্রচারণা: প্রশাসন কোথায়? শীর্ষক লিখাটি প্রকাশের পর এস্কর্ট সার্ভিসের আড়ালে সেক্স ট্রাফিকিং পরিচালনাকারী চক্রের হোতা ঝুমকা ইয়াসমিন লেখককে ড্রাগ মামলায় জড়িয়ে গ্রেফতার করানোর হুমকি প্রদান করেছেন। গতকাল রাতে উক্ত অভিযুক্ত অপরাধী মোবাইল ফোনে লেখককে হুমকি দিয়ে বলেন যে, ভয় দেখানোর জন্য লিখাটি লিখে কোন লাভ হবে না, এরকম শত শত লিখা প্রতিদিন তার নামে লিখা হয়। প্রেসিডেন্ট কেন, শেখ হাসিনা ও খালেদা জিয়াও তার কিছু করতে পারবে না। পাশাপাশি, তিনি অচিরেই সামু ব্লগ বন্ধের ব্যবস্থা করতেছে এবং লেখককে ড্রাগ মামলায় ফাঁসিয়ে গ্রেফতার করানোর হুমকিও প্রদান করেন।

তাছাড়া, তিনি গতকাল রাতে সামু ব্লগে মন্তব্যের মাধ্যমে উল্লেখ করেছেন যে, এই ব্লগের লেখক ইসলামের কট্টোরপন্থি একজন আইএসআই এর জংগী, যার স্বপন বাংলাদেশকে আফগানিস্থান বা সিরিয়া বানানো। তাইত তিনি সামু এডমিনকে ওই ভয়নকর আইএস আইএস এর এজেন্টকে সামু থেকে ব্যান করে দিতে আর লেখকের পার্সোনাল তথ্যাদি পুলিশকে দিতে সামু এডমিনের নিকট আহবান জানিয়েছে।

ইতোপূর্বে এই লিখাটিতে সংক্ষুব্ধ হয়ে ঢাকা এস্কর্ট সার্ভিস এর পরিচালক রাজিয়েল অ্যালেক্সান্ডার ইব্রাহিম তাঁর দ্বারা পরিচালিত পতিতাবৃত্তি অবৈধ নয় এই মর্মে গত ২১ অক্টোবর ২০১৬ ইং তারিখ ভোর: ৬:০৯ মিনিটে সামু ব্লগে মন্তব্যের মাধ্যমে তার কাজ চালিয়ে যাওয়ার প্রকাশ্যে চ্যালেঞ্জ প্রদান করে । তাছাড়া, সামু ব্লগে একজন ব্লগার আমাকে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে উস্কানী দাতা হিসাবে চিহ্নিত করে তথ্য প্রযুক্তি আইন এ মামলা করার হুমকি প্রদান করেন।