কাজের আশায় ভারত গমন, নিঃস্ব হয়ে দেশে ফেরা! পর্ব-১২

/

পূর্বের লেখা (পর্ব-১১) পর্ব-১২: পরদিন সকাল বেলা বড়দি আমাকে ঘুম থেকে জাগালো। বেলা তখন সকাল দশটার মতো বাজে। ভাড়াটিয়া ছেলে দুটোও নেই। ওরা সকাল আটটার সাথে সাথেই ওদের কাজে চলে যায়। ওরা সেখানে একটা পাওয়ার স্টেশনে কাজ করে। দিদি আমাকে জিজ্ঞেস করলো, “ওখানেও কি তুই এতো দেরি করে ঘুম থেকে উঠিস?” বললাম, “না। অনেক রাতে… Read more »

কক্সবাজার সমুদ্রসৈকত এবং একটি সম্ভাবনার অপমৃত্যু

/

কোথাও পড়েছিলাম, যে দেশের কপালে সাগর জুটেছে, তার অর্থনৈতিক উন্নতির গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী। একথা বাংলাদেশের জন্য একদমই খাটে না। ছোট ছোট সমুদ্রসৈকত নিয়ে কতই না আদিখ্যেতা আর আহ্লাদ করে কিছু কিছু দেশ। পর্যটকের ভিড় লেগেই থাকে সেসব দেশে। অর্থনীতি চাঙ্গা হতে থাকে তাদের। অথচ পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত থাকা সত্ত্বেও আমাদের সাধের কক্সবাজারে বিদেশি পর্যটক দেখা… Read more »

ওয়াইন টানেলের টানে

/

মাউন্টেইনের তলে পরিত্যাক্ত দীর্ঘ রেলওয়ে টানেলের গভীরে ঢুকে উষ্ণতা ফিরে পাই। কোরিয়ায় বসন্ত এসে গেছে, শুভ্র চেরির স্নিগ্ধতা চারদিকে। দক্ষিণের দিকে এর প্রকাশ আরো মাদকতাময়। সিউল থেকে চার ঘন্টার পথ পেরিয়ে ছিয়ংদো এসেছি এই মাদকতায় ভাসবো বলে। কিন্তু বসন্তের হিম বাতাস আর ঝড়ো বৃষ্টি সব মাটি করে দেয়। ছিয়ংদোর চারদিকে মাউন্টেইনের ভাঁজে ভাঁজে মেঘ খেলা… Read more »

ইতিহাস, ঐতিহ্য আর পাহাড়ের শহর ‘আক্রে’

/

কুর্দিস্তানে এখন বসন্ত। শীত যাবো যাবো করেও কেন যেন যাচ্ছে না। বিকেলের দিকে চমৎকার হাওয়া গায়ে সুড়সুড়ি দিয়ে যায়। রাতে এখনো চাদর টেনে শুতে হয়।  চারিদিকে ফুলের সমারোহ। আমার বাগানের গোলাপগুলো বেশ পুষ্ট হয়েছে। কদিন পরেই গরম শুরু হবে। এখানকার গরম দুর্বিসহ। তাপমাত্রা বায়ান্ন ডিগ্রি পর্যন্ত উঠে। গরম আসার আগেই সহকর্মীরা একটা পিকনিকের ব্যবস্থা করে… Read more »

দ্রুক ডায়েরিঃ থিম্পু থেকে পারো (৫ম পর্ব)

/

একটি রাত ও একটি দিন পুনাখাতে কাটিয়ে দোচূ লা পাস হয়ে রাজধানী থিম্পুতে এসে পৌঁছলাম পরদিন বিকেলে। শহরের একদম শিরস্ত্রাণে স্থাপিত বিশাল আকারের বুদ্ধমূর্তি। বুদ্ধ দোরদেনমা (Dordenma) মূর্তি। পদ্মাসনে আসীন প্রায় ১৬০ ফুট দীর্ঘ শাক্যমুনি বুদ্ধ থিম্পু শহর তথা ভূটানকে তাঁর আশীর্বাদে স্নাত করছেন।   পদ্মাসনে আসীন বুদ্ধ দোরদেনমা থিম্পু মারাত্মক শীতল। এখানে-ওখানে বরফ হয়ে… Read more »

কাজের আশায় ভারত গমন, নিঃস্ব হয়ে দেশে ফেরা! পর্ব-১১

/

পূর্বের লেখা (পর্ব- ১০)   পর্ব-১১: রবীন্দ্র নগর কলোনি পাহাড়ি এলাকা হলেও এখানে কেউ রাত ১০টার আগে ঘুমায় না। অনেক সময় রাস্তের পাশের দোকানগুলো রাত ১২টা পর্যন্ত খোলা থাকে। বেশিরভাগ মানুষের ঘরেই টেলিভিশন আছে। তবে আমি যখন সেখানে গিয়েছিলাম, তখন সেখানে রঙিন টেলিভিশন খুবই কম দেখেছি। সাদাকালো টেলিভিশনই বেশি ছিল। ওখানকার মানুষেরা সিনেমা, নাটক, থিয়েটার,… Read more »

দ্রুক ডায়েরি: পুনাখা (৪র্থ পর্ব)

/

তৃতীয় পর্ব… জোংখা ভাষায় ভূটানের নাম দ্রুক। দ্রুকের অর্থ ড্রাগন। ভূটানের সংস্কৃতিতে ড্রাগনের উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো। যাইহোক, পারোর চেয়ে পুনাখা খানিক উষ্ণতর। ঠাণ্ডার কামড়ের তীব্রতা কিছুটা কম অনুভূত হয় পুনাখা ভ্যালিতে। সমুদ্র সমতল থেকে ১২০০ মিটার উচ্চে পুনাখার অবস্থান। ১৯৫৫ সালের আগ পর্যন্ত তিলোত্তমা ভূটানের রাজধানী ছিলো পুনাখা। ভূটানের বিখ্যাত দুই নদী ফো চূ… Read more »

প্রকৃতির কোলে শুকতারা রিসোর্ট

/

সিলেটের খাদিম নগর জাতীয় উদ্যান থেকে ফিরছিলাম। হঠাৎ সিএনজি ড্রাইভার বললেন, “এখানে একটা রিসোর্ট আছে, দেখতে পারেন।”  আমার মাথাতেও আসেনি এমন একটি অরণ্য ঘেরা জায়গায় রিসোর্ট হতে পারে। কারণ চারদিকে কেবল গাছ ছাড়া আমার চোখে আর কিছু পড়ছিল না। আমি বেশ আগ্রহ নিয়ে ড্রাইভারকে গাড়ি ঘোরাতে বললাম।   প্রধান গেইট দিয়ে যখন শুকতারা রিসোর্টে ঢুকছি,… Read more »

দ্রুক ডায়েরি: চেলে লা ও দোচু লা গিরিপথ (৩য় পর্ব)

/

দ্বিতীয় পর্ব… হিমালয়ের আদুরে কন্যা ভূটান হিমালয়ের পূর্বকোল জুড়ে বিস্তার করে আছে। তাই সে এতো শীতল, তাই তার দরকার হয় এতো উষ্ণতা। উষ্ণতার কমতি হলেই অভিমানি কন্যা জমে যায়। টাইগার নেস্ট থেকে নেমে এসে পারো টাউনে দুপুরের খাবার খেলাম। ‘স্পেশাল ফ্রাইড রাইস’ অর্ডার করেছিলাম। আধাঘণ্টা পর খাবার যা আসলো তা দেখে ক্ষুধা পালালো পশ্চিমের পাহাড়… Read more »

একদিন জাপানি আইনুদের গ্রামে (পর্ব- ৩)

/

দ্বিতীয় পর্ব..     আমি বিস্ময়কর দৃষ্টি নিয়ে আইনু নারীদের নাচ দেখছিলাম। সেই সাথে হাতের গাইড বুক পড়ে তাদের আচার-অনুষ্ঠানগুলো বুঝার চেষ্টা করছিলাম। একটা বিষয় লক্ষ্য করলাম, নৃত্যরত নারীরা একটু বয়স্ক। সবাই চল্লিশ বছর বয়সের উপরে। সাজ-সজ্জার কারণে তাদের বয়স বুঝা কঠিন। এখানে তরুণ বয়সের কাউকে দেখা যাচ্ছে না। নারীদের পোশাকগুলো জাপানি কিমোনো স্টাইলে হলেও… Read more »