রোহিঙ্গাদের নিধনে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর তিন কৌশল

/

  গত ২৫শে আগস্ট কয়েকটি সেনাবাহিনী আর পুলিশের টহল চৌকিতে দুর্বৃত্তদের হামলার জের ধরে আবার রোহিঙ্গাদের উপর খড়গ নেমে আসে। সন্ত্রাসী দমনের নামে, সেনাবাহিনীর সাথে মগ সন্ত্রাসীরাও নেমে পড়েন রোহিঙ্গা দমনে। ফলে প্রাণ রক্ষার জন্য লাখ লাখ রোহিঙ্গা মাতৃভূমি ছেড়ে বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নিচ্ছে। জনমনে প্রশ্ন রোহিঙ্গারা এই বর্বর হামলা প্রতিরোধ করছে না কেন? স্বাধীন… Read more »

সু চি’র বিচার: গণহত্যার দায় ও ভবিষ্যৎ

/

কত রোহিঙ্গা হত্যা করেছেন? আরাকান প্রদেশে বিগত প্রায় এক মাসে কত নারী ধর্ষিত হয়েছে? আপনার সেনারা কত জীবন্ত শিশুর সলিল সমাধি করছে? গণহারে কত রোহিঙ্গা পুরুষকে গুলি করে হত্যা করেছেন? প্রায় দুইশত রোহিঙ্গা অধ্যুষিত গ্রাম পুড়িয়ে ধুলার সঙ্গে মিশিয়ে দিয়েছেন। আর কত গণহত্যা করে আপনারা থামতে চান! অার নয়, এবার থামুন, কারণ গণহত্যাকারীদের বিশ্ব ইতিহাস… Read more »

রোহিঙ্গা সংকট ও বাংলাদেশ

/

  বর্তমান পৃথিবীতে প্রকৃত শরণার্থী বলতে যদি কেউ থাকে তবে তা হলো মিয়ানমারের রোহিঙ্গা সম্প্রদায়। তাদের কোন দেশ নেই। যে দেশে তারা দীর্ঘকাল ধরে বসবাস করে আসছে সেই দেশটাই তাদের নাগরিক হিসেবে স্বীকৃতি দিচ্ছে না। অথচ এক সময় মিয়ানমার পার্লামেন্টে রোহিঙ্গাদের শুধু যে প্রতিনিধিত্ব ছিল তাই না, মন্ত্রী হিসেবেও তারা রাষ্ট্র পরিচালনায় অবদান রেখেছে। বার্মার… Read more »

সু চি’র ‘শান্তিতে’ নোবেল পুরষ্কার প্রত্যাহারের দাবি

/

  শান্তিতে নোবেল পাওয়া অং সান সু চি সারা বিশ্বের কাছে পরিচিত ছিলেন একজন মানব দরদী হিসেবে। তাইতো রোহিঙ্গাদের উপর মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্বিচারে হত্যা ও অত্যাচারের ঘটনাগুলো প্রকাশিত হওয়ার পর থেকেই অনেকে আঙুল তুলছেন তার নোবেল পুরষ্কারের দিকে। তিনি কি সত্যিই ‘শান্তিতে’ নোবেল পাওয়ার যোগ্য ছিলেন? বর্তমান প্রেক্ষাপটে প্রশ্নটাকে আমিও যৌক্তিক মনে করি। শান্তিতে নোবেল… Read more »

মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নিধন ও ক্ষতিগ্রস্ত বাংলাদেশ

/

মিয়ানমারের কট্টরপন্থী বৌদ্ধ ধর্মগুরু অসিন উইরাথুর কথা সবারই মনে আছে। ২০১৩ সালের জুন মাসে প্রকাশিত টাইম ম্যাগাজিন যার উপাধি দিয়েছিল ‘ফেইস অব টেরর’ বা সন্ত্রসীর চেহারা। ২০০৩ সালে ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ানোর দায়ে তার ২৫ বছরের জেল হলেও মুসলিমবিরোধী প্রচারণার কারণে ২০০৩ সাল থেকে ৭ বছর জেলে ছিলেন। পরবর্তীতে ২০১০ সালে কারা মুক্ত হয়ে নিজেকে মিয়ানমারের… Read more »

একাত্তরের বিজয়ীরা আরাকানেও জয়ী হবে

/

বাংলাদেশের ইতিহাস অত্যন্ত গৌরব ও ঐতিহ্যের। এ গৌরবের শুরুতে রয়েছে অস্ত্র-শস্ত্রে সুসজ্জিত পৃথিবীর এক পেশাদার সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে জয়। একাত্তর সালে আমরা  হানাদার পাকিস্তান বাহিনীর বিরুদ্ধে জয়লাভ করেছি। তখন আমাদের অর্থনীতি বলতে কিছুই ছিল না। কিন্তু মনোবল ছিল তুঙ্গে। আমাদের ছিল সাহসী নেতৃত্ব। দীর্ঘ নয় মাস বীরদর্পে লড়াই করে অবশেষে আমরা বিজয় ছিনিয়ে এনেছি। তারপর সাতচল্লিশ… Read more »

শেখ হাসিনাকেই সামাল দিতে হবে

/

. মানব সভ্যতার স্বর্ণযুগ একবিংশ শতাব্দিতে এসেও বিশ্বের অন্যতম নিপীড়িত-নির্যাতিত জনগোষ্ঠীর নাম রোহিঙ্গা। আর এই রোহিঙ্গাদের উপর মিয়ানমার সরকারের তান্ডব ইতিহাস রচিত। ১৭৮৪ সালে বার্মার তৎকালীন রাজা আরাকান দখলের পর থেকে এ জনগোষ্ঠীর মানুষের উপর যে হত্যা, বিতাড়ণ শুরু হয়েছিল; মানব সভ্যতার এই সময়ে এসে আরও নতুন মাত্রা যোগ হয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ের ২৪ আগস্ট রাখাইন… Read more »

আমি নোবেল পুরস্কার চাই না…

/

বঙ্গবন্ধু কন্যা ও বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী বিশ্ব শান্তির অগ্রদূত শেখ হাসিনা জাতিসংঘ ৭২তম সাধারণ অধিবেশনে যোগ দেবেন। সারা বিশ্ব তাকিয়ে আছে তার দিকে, প্রয়াত ইন্দিরা গান্ধীর পর রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে তিনি যে নজিরবিহীন উদারতা ও মানবিক দৃষ্টিকোণ নিয়ে এগিয়ে এসেছেন তা একবাক্যে প্রশংসাযোগ্য। আমরা তার চোখে অশ্রু নয় বরং বঙ্গবন্ধুর মতো দৃঢ়তা দেখতে চাই। একাত্তরে… Read more »

নিন্দা আর উদ্বেগ নয়, চাই কার্যকর হস্তক্ষেপ

/

বাস্তুহারা, স্বজন হারা, অসহায় নিরন্ন ১০ লাখ রোহিঙ্গার আহাজারিতে যখন আকাশ-বাতাশ প্রকম্পিত, যখন সমগ্র বিশ্বের মানুষ যখন রোহিঙ্গা নিধনের নিন্দা জানাচ্ছে, বর্মি মগ দস্যু সেনা সরকারের কোনো বিকার নেই।  অন্যদিকে অন সাং সুচি চাইলেও যে কিছু করতে পারবেনা, সেটা এখন বেশ পরিস্কার।  মগরাজ্যে রোহিঙ্গা নিধনের মূলে সেদেশের সেনা সরকার। সবচাইতে মর্মপীড়াদায়ক বিষয় এখন এই যে-… Read more »

নোবেল পুরস্কার ও অং সান সু চি বনাম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

/

আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ মিয়ানমার। এই দেশটি কোনও একসময় ব্রহ্মদেশ বা বার্মা নামেও বিশ্বের কাছে পরিচিত ছিল। বর্তমান নাম মিয়ানমা, যা বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ। এই মিয়ানমারের একটা প্রদেশের নাম আরাকান, যা আমাদের সবাইর জানা। এই প্রদেশের রাখাইন রাজ্যে মুসলিম ধর্মাবলম্বীরা মিয়ানমার-সহ বিশ্বের কাছে রোহিঙ্গা নামে পরিচিত। এই আরাকান প্রদেশে ২০০ বছর ধরে চলে আসছে, বৌদ্ধ-মুসলিমদের মধ্যে… Read more »