কাসেম বিন আবুবাকার প্রসঙ্গে

/

বিদেশি মিডিয়ায় প্রচারণার পর দেশি মিডিয়ায় মাতামাতি দেখে আজ কাসেম বিন আবুবাকারের শ্রেষ্ঠ রচনা বলে খ্যাত ‘ফুটন্ত গোলাপ’ এর পিডিএফ কপি পড়তে চেষ্টা করলাম। একটি জায়গায় গিয়ে পড়াটা আর টেনে নিতে পারলাম না। এই পাঠের ফলে আমি যা বলব তা অনেককে খুশি করবে না জানি। তবু সত্যের খাতিরে বলতেই হচ্ছে। কাহিনী আর গল্প মাত্রই সাহিত্য… Read more »

কাসেম বিন আবুবাকার ও আমার অভিজ্ঞতা

/

কাসেম বিন আবু বকর। এই সময়ের খুব আলোচিত নাম। বিবিসিকে দেয়া তার একটি সাক্ষাতকার পড়ছিলাম।  বিবিসিকে তিনি বলেছেন, “তার পাঠকদের ৮০ শতাংশই গ্রামের, বাকিরা শহরের।”     কাসেম বিন আবু বকরের উচ্চারিত “শহর ও গ্রাম”  শব্দ দুটোকে সামনে রেখেই আমার বক্তব্য। তখন আমি অষ্টম শ্রেণিতে পড়তাম। ওই সময়ে আমি কাসেম বিন আবু বকরের একটি উপন্যাস… Read more »

নাগরিক সমস্যা নিয়ে নাগরিক সাংবাদিকদের ‘নগর নাব্য – মেয়র সমীপেষু’ এবার চাঁদপুর জেলা প্রশাসনে

/

নগরের নানা অসঙ্গতি আর নাগরিকের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে ব্লগ ডট বিডিনিউজ২৪ ডটকমে প্রকাশিত নির্বাচিত প্রতিবেদন নিয়ে ফেব্রুয়ারি ২০১৭ -তে প্রকাশিত ‘নগর নাব্য – মেয়র সমীপেষু’। চাঁদপুর প্রশাসনের নিকট চাঁদপুরের নানা ভোগান্তির গল্প ব্লগ ডট বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের  ‘নগর নাব্য – মেয়র সমীপেষু’  -র মাধ্যমে তুলে ধরা হয়। এছাড়া প্রতিনিয়তই ব্লগ ডট বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমে চাঁদপুরের… Read more »

তারুণ্যের সাহিত্য-সংস্কৃতিতে গাঁজার দর্শন

/

বর্তমান সাহিত্য ও সংস্কৃতি সমাজে মাদকের মধ্যে সেলিব্রিটি দুইটা মাদক হল তামাক আর গাঁজা। ব্রিটিশরা আসার আগে তামাকের নামগন্ধ কিছুই ছিল না। গাঁজার একচ্ছত্রবাদে গমগম করত উপমহাদেশ। ভারতবর্ষের আদি উপাখ্যানগুলোতেও গাঁজার ধর্মীয় মূল্য অফেরতযোগ্য। ব্রিটিশরা ভারতে এসে নেশার রাজ্যেও হাত লাগিয়ে রাজা হিসেবে গাঁজার রিপ্লেসমেন্টে তামাককে বসালো। তাদের শাসনামলে বেশ কিছু দশক ভারতে গাঁজার চাষ… Read more »

জ্ঞান অর্জনের উৎকৃষ্ট মাধ্যম হল মাতৃভাষা

/

সাধারণভাবে জ্ঞান বলতে কোন বিষয়ের সাথে সম্পৃক্ততা, সচেতনতা, অথবা বুঝতে পারাকে বুঝায়। যখন কোন শিশুর জন্ম হয় তখন সবার আগে সম্পৃক্ততা হয় তার মায়ের সাথে। একটি শিশু তার জন্মের আগেই বুঝতে শিখে। বুঝতে পারা শুরু হয় যখন মাতৃগর্ভে তার বয়স প্রায় ৫ (পাঁচ) মাস। মায়ের সাথে সম্পৃক্ত হয় তারও আগে। মায়ের গর্ভে থাকা অবস্থায়ই শিশু… Read more »

মজিদ মাহমুদ যেভাবে পাঠকের হৃদয়ে

/

আর আমাদের স্বীকার না করে উপায় নেই, নাগরিক জীবন প্রতিদিনই ক্লান্ত হয়। সংসার তাকে ক্লান্ত করে, অফিস তাকে ক্লান্ত করে। তাকে ক্লান্ত করে ট্রাফিকের লাল আলো, রাস্তার ভিখিরি, মোড়ের মুদি দোকানী, ফুটপাতের চা-ওয়ালা। ছেলেটার স্কুলের বেতন, মেয়েটার লাল ফিতের বায়না, বউয়ের নিরীহ মুখ, বন্ধুর আহ্লাদি আবদারও তাকে কম ক্লান্ত করে না। তাকে ক্লান্ত করে যাপিত… Read more »

‘কাঁটাতারের বেড়া আমাদের সাহিত্যকে কখনই আলাদা করতে পারবে না’

/

পহেলা বৈশাখ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ উপলক্ষে বিশ্ব কবিমঞ্চ সিলেটের আয়োজনে গত ১৫ এপ্রিল শনিবার সিলেট নগরীর দরগা গেইটস্থ রোটারিয়ান ড. আর কে ধর মিলনায়তনে ভারতীয় কবিদের অংশগ্রহণে এক বৈশাখী কবিতা আড্ডা অনুষ্ঠিত হয়। বিকেল ৫টায় বিশ্ব কবিমঞ্চ সিলেট মহানগরের সমন্বয়কারী গৌতম বুদ্ধ পালের সঞ্চালনায় রোটারিয়ান ড. আর কে ধর এর সভাপতিত্বে শুরু হয় বৈশাখী কবিতা আড্ডা।… Read more »

লেখকের জীবনে পাঠকের ভালোবাসা

/

ফটো ক্রেডিট: সুনায়না ইসলাম   একজন লেখকের জীবনে পাঠকের ভালোবাসা হলো মহা মুল্যবান গুপ্ত সম্পদের মতো।একটা বিল্ডিংয়ের শক্ত পিলার গুলোর মতো।যে কোন দুর্যোগে লেখককে বাঁচিয়ে রাখে। পৃথিবীতে হাজার হাজার লেখক আছেন নানা ভাষায়। প্রতিটি লেখক তার সময় এবং অভিজ্ঞতাকে নিজের অনুভূতিতে কলমে কিংবা কিবোর্ডে তুলে ধরে। কেউ কেউ হয়তো লেখক হিসেবে স্বীকৃতি পেতে লিখে, কেউ… Read more »

ইংরেজিটা কেন এত আউলা ভাষা, প্রিয়?

/

ভাষা বীজগণিতের তালে চলে না— তা সবারই জানা। তবে যত বেতালই হোক, ইংরেজির মতো আউরা-কাউরা ভাষা দুনিয়ায় আর থাকার কথা নয়। নিয়তই বিস্তর ঝামেলা বাধে শব্দ নিয়ে, অর্থ নিয়ে, উচ্চারণ নিয়ে। এমনিতেই ছাব্বিশ হরফে চুয়াল্লিশ রকম উচ্চারণের জ্বালা, তার উপর আবার ইন-এট-বাই-টু-অন ইত্যাদি ধনটন মিলিয়ে এক শব্দের দুই-তিনশো ধরন ধারণ। সত্যিই, খুব এলোমেলো বিষয়। …. Read more »

হানিফ রাশেদীনের ‘প্রতীক্ষা ও আহ্বান’

/

কবিতার শিরোনাম দেখে মগজ তড়পায়। স্মৃতির খোপে ডানা ঝাপটায় স্মরণের পায়রা। ‘প্রতীক্ষা’ অথবা ‘অপেক্ষা’ শিরোনামে একের পর এক গল্প, উপন্যাস, সিনেমা, গান, কবিতার নাম মনে পড়তে থাকে। প্রতীক্ষা এবং অপেক্ষা এমনই শব্দযুগল যা নিয়ে প্রায় সব লেখকই কিছু না কিছু লিখেছেন। বৃদ্ধ রবীন্দ্রনাথকে মনে পড়ে। তিনি লিখেছেন এক অস্তাচলগামী সূর্যের হাহাকার— ‘সকল বেলা কাটিয়া গেল… Read more »