ক্যাটেগরিঃ প্রশাসনিক

ঢাকা এক আজব শহরের নাম! যেমন আজব এই নগর, তেমন আজব এর নাগরিক! মেট্রোরেল যেখানে সময়ের দাবি সেখানে বিমানবাহিনী পুরাতন বিমানবন্দরের দোহাই দিযে মেট্রোরেল নির্মাণকাজে বামহাত ঢুকিয়ে দিল। তীব্র বাধার মুখে মেট্রোরেল লাইনের নকশা পরিবর্তন করা হলো অথচ রোকেয়া স্মরনীর বিমান ঘাঁটির পাশ দিয়ে কিন্তু রুট গেল, এবার বিমানবাহিনী নীরব! এই নীরবতার ঘোর কাটতে না কাটতেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে শুরু হলো ছাত্র আন্দোলন। মিছিল-মিটিং-স্লোগানে উত্তপ্ত প্রাচ্যের অক্সফোর্ড! বিভিন্ন জটিলতায় পিছিয়ে যাচ্ছে আমাদের ঢাকা। মেট্রোরেল, ব্যাস্ত নাগরিক জীবনে প্রতিদিন যোগ করবে কয়েক ঘন্টাকরে সময় যেটা অপচয় হয়/হবে যানজটের কবলে পড়ে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহাসিক স্থানগুলোর নকশাগুলো যেন হুমকির সম্মুখীন না হয় সেজন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের ভিতর দিয়ে যাওয়া মেট্রোরেলের রুট পরিবর্তন করে যদি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের পাশ দিয়ে মেট্রোরেলের রুট নির্মাণ করি তাহলেই তো ল্যাটা চুকে গেল। মেট্রোরেলও হল, ঢাবি ছাত্র আন্দোলনও খালাস! রাজনৈতিক, সাম্প্রদায়িক ও দলাদলির ছলে দালালির অভিযোগ কাউকে হজম করতে হবে না! সাপও মরলো, লাঠিও ভাঙ্গলো না। জয় বাংলা।

https://www.facebook.com/rajuchaqladar

slide

মেট্রোরেলের রুট পরিবর্তনের দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টুডেন্টগণ