ক্যাটেগরিঃ দিনলিপি

পুরো দেশ জুড়েই পোড়া মাংসের কটু গন্ধ তাই আজ না হয় বিভৎসতার ঘটনাগুলো দূরে থাক…তারচে বরঞ্চ একটু অন্য কিছু লিখি…

ট্রেনে করে সিলেট যাচ্ছি…সকালের পারাবত…দুপুর নাগাদ ট্রেনটা ঢুুকলো লাউয়াছড়ার বনের ভেতর…এই একটা বিষয় যখনই লাউয়াছড়ার ভেতর দিয়ে যাই তা সে ট্রেন, বাস বা হেঁটে যেভাবেই হোক না কেনো আমার গা টা কেমন যেনো শির শির করে…বোধহয় অতিরিক্ত উত্তেজনায়….মরা পাতার সবুজ এই বনটা আমার ভীষন ভালো লাগে…তবে খুব মন খারাপও হয় বনে ঢুুকলে…কারন প্রতিবারই দেখি বনটা ছোট ছোট আসছে…

বনে ঢোকার সঙ্গে সঙ্গেই ট্রেনের জানালা দিয়ে খুব আগ্রহভরে তাকিয়ে রয়েছি…হঠাৎই চোখে পড়লো হলুদ রঙের একতলা একটা বাড়ি…এক পলকের দেখায় দেখলাম, বাড়িটার দরজা জানালা বেশ টাইট করে আটকানো…সামনের দুটি জানালার একটার কাঁচ ভাঙা…ভাঙা জায়গাটায় এক টুকরো হার্ডবোর্ড দিয়ে ঢাকার চেষ্টা করা হয়েছে…বাড়ির সামনের ধুলোমাখা দরজা, জানালা, বারান্দা আর বিবর্ণ রঙই বলে দিচ্ছে এখানে কারো অনেকদিন পা পড়ে না…তাই একে বনের মাঝে নিঃসঙ্গ বাড়ির মর্যাদা দেয়া যায়…

কিন্তু বাধ সেধেছে বাড়িটির সামনে দাঁড়িয়ে থাকা একটা জীপ গাড়ি…গাড়িটি পুরনো হলেও সদ্য গাঢ় সবুজ রঙ করা… তাই তাকে ঝা চকচকে বলা যায় তাকে…জন মনুষ্যহীন বাড়ির সামনে গাড়িটাকে খুব বেমানান লাগলো…ওই এক মুহুর্তের দেখায় অামার বারবার মনে হতে লাগলো…এই গাড়িটার মালিক কে??? কেনই বা এরকম একটা রহস্যময় বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে গাড়িটি…হলিউড সিনেমার মতো কোন ভৌতিক কাহিনী নাতো…যে নায়ক গাড়িটি রেখে কোনভাবে বাড়ির ভেতর গিয়েছে…বাড়ির ভেতরে গেছে সঙ্গে সঙ্গে ঘটতে শুরু করেছে নানারকম ভৌতিক কাণ্ড…অ‍ার বাইরে সব স্বাভাবিক…

এসব সাতপাঁচ ভাবতে ভাবতে সিলেট পৌঁছালাম…কাজ শেষে পরদিন বিকেলের ট্রেন ধরেছি ঢাকা ফিরবো বলে…যথারীতি বিকেল আলো মেলানোর আগেই ট্রেন লাউয়াছড়ায় ঢুুকলো…আমি সিট ছেড়ে দরজায় গিয়ে দাঁড়ালাম বাড়িটাকে আরেক নজর ভালোভাবে দেখবো বলে…

সব ঠিকঠাক…দরজা জানালাও আগের মতো খুব শক্ত করে আটকানো…শুধু বাড়ির সামনে দাঁড়ানো সবুজ গাড়িটা নেই…তবে বাড়ির সামনের খোলা জায়গার নরম বালিতে খাঁজকাটা চাকার দাগ লেগে রয়েছে…পুরো দৃশ্যটাই কেমন যেনো মন খারাপের…

বাড়িটাকে ‘নিঃসঙ্গ’ বাড়ির তকমা দিয়ে মনে মনে ভাবলাম নিঃসঙ্গতা জিনিসটা একেবারে খুব খারাপ কিছু না…বেমানান কিছু চাপিয়ে দিয়ে নিঃসঙ্গদের বিরক্ত করাটাও ঠিক না…তা সে নিঃসঙ্গ বাড়িই হোক অথবা মানুষ…