ক্যাটেগরিঃ খেলাধূলা

 

হুম, আপনি সাদাদিনও বলতে পারেন। হাজার হাজার কোটি টাকার ক্রিকেট বাণিজ্য এবং বড়দলগুলো অহমিকার ফাঁকে পড়ে যারা তৃপ্তি পান, তাদের জন্য শুধু সাদা নয়, বরং রংধনু দিন। গতকাল আইসিসির এক্সিকিউটিভ কাউন্সিলের সভায় সিদ্ধান্ত হয় ২০১৫ বিশ্বকাপ ক্রিকেটে অংশ নেবে কেবল ১০টি দল। যারা টেস্ট স্টাটাস পেয়েছে।

পুরো বিষয়টি নিয়ে একটি ভালো নিউজ দেখলাম বিডিস্পোর্টসনিউজডটকম এ। যেখানে এ বিষয় নিয়ে আইরিশদের ক্ষোভ এবং হতাশার কথা উঠে আসে। কারণ যেকেউ স্বীকার করবে, এবার অন্তত জিম্বাবুইয়ের মতো দলের চেয়ে আইরিশদেরকে খুব স্পোর্টিং মনোভাবে দেখা গেছে। অথচ ওরা আগামী বিশ্বকাপ ক্রিকেট খেলতে পারবে না।

“দ্রুত উন্নতি করে যাওয়া দলগুলোর সামনে দড়াম করে দরজা বন্ধ করে দিয়েছে আইসিসি। যেমন ধরুন আয়ারল্যান্ডের কথা, এবারের বিশ্বকাপে তারা খুবই ভালো পারফর্ম করেছে। আগামি বিশ্বকাপে কিন্তু এদের আর দেখছেন না। অর্থাত বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের মতো দলকে হারানোর সুযোগ আমরা আর পাবো না। এটা নি:সন্দেহে একটি কালো দিন হিসেবে চিহ্নিত হবে”

– ২০১৫ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে কেবল টেস্ট প্লেয়িং দলগুলো খেলবে, এমন সিদ্ধান্তের পর আইরিশ ক্রিকেট বস ওয়ারেন ডিউট্রোম ক্ষোভ এবং হতাশার সাথেই কথাগুলো বলেন।

“২০১৯ সালের পর্যন্ত আয়ারল্যান্ড বা নেদারল্যান্ডের মতো দলগুলো বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতার জন্য কাজ করে যাবে, কিন্তু এ ধরনের সিদ্ধান্ত এমন দলগুলোকে ৮ বছরের জন্য এ ইভেন্টের অলংকার হবার সুযোগ দিচ্ছে না।”

“এটা কেবলই ক্রিকেট বাণিজ্যের জন্য ইন্ডিয়া এবং ইংল্যান্ডের মতো দলকে এক টূর্নামেন্টে সর্বোচ্চ ৯ ম্যাচ খেলার সুযোগ করে দেয়ার সিদ্ধান্ত। আইসিসি টেস্ট প্লেয়িং দলগুলোকে নিয়ে থাকতে চাচ্ছে। কিন্তু এতে করে ক্রিকেটের উন্নতি হবে না। অপর ৯৫ সদস্যের কি কাজে লাগলো এমন সিদ্ধান্ত, এটা একটা গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন।”

ওয়ারেন ডিউট্রোম মনে করেন,

“এরকম একটি তুমুল আয়োজনে সবাই অপেক্ষা করে দুর্দান্ত এক ফাইনালের জন্য। যার দিকে নজর থাকে সবগুলো দলের। অথচ স্বীকৃতি আদায়ের অপেক্ষায় থাকা দলগুলো যোগ্যতা প্রদর্শনের সুযোগ পাচ্ছে না। আজ সে দরজা বেশ জোরেশোরে বন্ধ করে দিয়েছে আইসিসি। তিনি বলেন, ক্রিকেটের জন্য আজ সত্যিই একটি হতাশাজনক কালো দিন।”

টুইটারে আইরিশ ক্রিকেটারদের করা কিছু টুইটঃ

গ্রে উইলসনঃ

এটা কি হলো! এটা একটি আবর্জনা সিদ্ধান্ত। না হোক বিশ্বকাপ, একটি আন্তর্জাতিক ইভেন্টে মাত্র ১০ দল খেলবে, এটাইতো বিস্ময়। আইসিসিকে কঠোরভাবে অপমান করা উচিত।

জনস্টনঃ

আগামী টি২০ ক্রিকেট বিশ্বকাপের পর আমার অবসর নেয়া অনেক সহজ করে দিয়েছে আইসিসি। তাদেরকে ধন্যবাদ।

বয়েড র‌্যানকিনঃ

ধন্যবাদ আইসিসি। এবার বলো আইরিশ ক্রিকেটকে এখন কোথায় যাওয়া দরকার, কসাইখানা?

মূল নিউজটি পাবেন এখানে।