ক্যাটেগরিঃ স্যাটায়ার

দেশের ৮০ ভাগ মানুষ সত্য জানে না। বাকি ২০ ভাগ সত্য খেয়ে বেঁচে আছে। কিন্তু এভাবে আর কতোদিন? সবাইকে সত্য জানতে হবে। সত্য না জেনে মৃত্যুবরণ করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ। আসুন আমরা প্রতিদিন কিছু কিছু সত্য জানার চেষ্টা করি। আজ দিলাম তার প্রথম পর্ব।

(১) জিয়াউর রহমান না থাকলে মুক্তিযুদ্ধ হতো না।
(২) শেখ মুজিব ছিলেন ভারতের দালাল।
(৩) পাক বাহিনী এ দেশে এসেছিলো ইসলাম রক্ষা করতে।
(৪) দেশ স্বাধীন হবার পর পাকসেনাদের ক্যাম্পে আনন্দে অশ্রু বিসর্জন দেন জিয়াউর রহমানের স্ত্রী খালেদা বেগম।
(৫) গোলাম আজম যুদ্ধের সময় লন্ডনে গিয়ে আটকা পড়েছিলেন। তিনি সেখানে বাংলাদেশের জন্য নফল নামাজ আদায় করতেন।
(৬) রাজাকার শব্দটি মিডিয়ার সৃষ্টি। বর্তমান জামায়াত নেতাদের কেউই রাজাকারি করে নি।
(৭) মুক্তিযুদ্ধের সময় সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী নাবালক ছিলেন। যুদ্ধটুদ্ধ এসব তিনি বুঝতেন না।
(৮) মুক্তিযুদ্ধের সময় পাক বাহিনীকে সাহায্য করতে ইসরাঈল থেকে ইহুদীচক্র এসেছিলো। ওরাই রাজাকার।
(৯) সাঈদীকে রাজাকার বলা যাবে না। কারণ তিনি আল্লাহর সিল মারা মুসলমান। বাংলাদেশের ইসলামের মালিকানা উনাদের হাতে।
(১০) আমিনীও আল্লাহর খুব কাছের মানুষ। আর কিছুদিন পর তিনিও সিল পেয়ে যাবেন।
(১১) দেশের সাধারন মুসলমানরা সবাই গরু খাওয়া মুসলমান। মৌলবাদী রাজনৈতিক দলগুলো ছাড়া আর কোন মুসলমান এ দেশে নেই।

আপাতত এসব সত্য নিয়ে সন্তুষ্ট থাকেন। প্রতিদিন ঘুমানোর আগে ৩বার এবং ঘুম থেকে উঠে ৩ বার ১১টি সত্য পড়বেন। পারলে দুপুরেও একবার পড়ে নিবেন। আল্লাহর রহমতে আপনিও কলিযুগের ‘আল-আমীন’ হিসেবে স্বীকৃতি পাবেন।