ক্যাটেগরিঃ গণমাধ্যম

 

অবশেষে আজকে পত্রিকা মারফত ( প্রথম আলো ) জানতে পারলাম ভারতে আমাদের চ্যানেল গুলু চলার উপর আর কোন বিধি আরোপ করা নেই । অনেক দিন থেকেই এ বিষয়টি নিয়ে আলাপ আলোচনা চলছে । ধন্যবাদ জানাচ্ছি প্রথম আলো কে , যারা ভারতের সাথে সম্পর্ক উন্নয়নে মৈত্রী বন্ধনের মত চমকপ্রদ একটি সফরের আয়োজন করেছিল ।

সংস্কৃতি আসলে কি ? কিভাবে নির্ধারিত হয় একটি স্বাধীন দেশের সংস্কৃতি ? বা সংস্কৃতি কেন ? খুব স্বাভাবিক বলে যদি বলি একটি দেশের মানুষের ভালো লাগা মন্দ লাগা বা একটি দেশের চিরাচরিত অভ্যাস যা নিত্যদিনের জীবনযাত্রায় প্রভাব বিস্তার করতে সক্ষম হয় তাই সংস্কৃতি ।সংস্কৃতির অবশ্য বিভিন্ন রুপ গুন বা কালেভাদ্রে সংস্কৃতির ভিন্ন রূপও পরিলক্ষিত হয় । আমাদের নিতদিনে এক রকম সংস্কৃতি মেনে চলি আবার জীবন সংগ্রামে অন্য রকম সংস্কৃতি মেনে চলি । তেমনি অন্য একটি রুপ হল আকাশ সংস্কৃতি । অনেক আগে থেকে আকাশ সংস্কৃতিরপ্রচলন শুরু হয়ে আজ তার প্রভাব আমাদের জীবনে অনেকখানি । এই আকাশ সংস্কৃতির কয়েকটি রুপ হল বিভিন্ন টিভি চ্যানেল । অবশ্য এতে অনলাইন পত্রিকা এবং ম্যাগাজিন ও রয়েছে । যা উম্মুক্ত থাকার কারনে যে কেও পড়তে পারে ।কিন্তু যত গ্যাঁড়াকল সব হচ্ছে টিভি চ্যানেল গুলু নিয়ে । কারন একটি দেশে কোন কোন দেশের টিভি চ্যানেল গুলু চলবে বা ভল্বে না তা সে দেশের তথ্য বা সংস্কৃতি মন্ত্রনালয় বা সরকারের উপরস্থ কর্তারা ঠিক করে দেন তবে হ্যাঁ ক্ষেত্রবিশেষে ক্যাবল অপারেটরগুলোর যৎসামান্য ভুমিকা থাকে ।

ভারতের আইন ১৯৫৬ অনুযায়ী যে কোন বিদেশী চ্যানেল ডাউনলিংক করতে হলে সে দেশের তথ্য বা সম্প্রচার মন্ত্রণালয় বরাবর আবেদন করতে হবে । এবং আবেদনকারী চ্যানেলের শীর্ষ কর্তাদের নাম ঠিকানা সহ আরও বিভিন্ন কিসিমের বিধি উল্লেখ রয়েছে । তাছাড়া কোম্পানির নিবন্ধন ও ডাউনলিংক এর অনুমতির জন্য ১০ লাখ রুপি ফি দিতে হবে এবং চুক্তি হবে মেয়াদের ভিত্তিতে তার মানে বছরে বছরে নবায়ন ফি দিয়ে চুক্তি নবায়ন করতে হবে । আমার অবশ্য ভারতীয় অভ্যন্তরীণ এই ধরনের চুক্তি নিয়ে বিন্দুমাত্র মাথাব্যাথা নেই তবে এ প্রসঙ্গে কিছু কথা বা প্রশ্নের উদ্রেক হচ্ছে আজকে প্রথম আলো পত্রিকা পড়ার পর থেকেই । কিছু প্রশ্নের উত্তর আমি নিজে যেমন জানি না আমার মনে হয় আমার মত অনেক অধম ও ঠিক কোন চুক্তির ভিত্তিতে ভারতীয় চ্যানেল গুলু বাংলাদেশে চলমান আছে তাও জানে না । প্রথমত ভারতীয় যে সব চ্যানেল এখানে চালু আছে তারা বাংলাদেশের কোন মন্ত্রনালয় থেকে অনুমতি নিয়েছে , এবং কোন ধরনের চুক্তিতে এরা আবদ্ধ হয়েছে । এককালীন না কি বন্দুত্বের নিদর্শন স্বরুপ মাগনা চলছে । দ্বিতীয়ত এ সব চ্যানেল গুলু থেকে কত ফি নেওয়া হয়েছে নিবন্ধন ও ডাউনলিঙ্ক বাবদ। অথবা ঠিক কোন ধরনের চ্যানেল গুলু এখানে চলতে পারবে ? এখানে চলমান চ্যানেলগুলো কি সরকারের কাছ থেকে অনুমত নিয়েছে ? না কি শুভঙ্করের ফাঁকি হিসেবে ক্যাবল অপারেটরদের কারসাজিতে চ্যানেল গুলু চলছে ?

পত্রিকা মারফত আরও অবগত হলাম যে দেশের কোন চ্যানেল এর পক্ষ থেকে এখনো পর্যন্ত আবেদন করা হয়নি সম্প্রচারের অনুমতি নেওয়ার জন্য । কিন্তু কথা হচ্ছে যেখানে খুব সম্ভবত ভারতীয় চ্যানেল গুলু কোন অনুমতির তোয়াক্কা না করেই দেদারসে চলছে সেখানে এত বড় অঙ্কের ফি দিয়ে অনুমতি নেওয়া কি শোভা পাই ? আশা করি দেশের উপযুক্ত কর্তারা এসব বিষয় গুলু ভেবে দেখবেন । এদের চ্যানেল গুলু যদি বেওয়ারিশ ভাবে চলতে পারে তাহলে আমাদের বেলায় কেন এ লঙ্কাকাণ্ড ? না কি গ্যাঁড়াকলে ফেলে নিরুৎসাহিত করা ? অবশ্য চ্যানেল শুধুমাত্র বিভিন্ন রকমের প্রোগ্রাম দেখিয়ে ক্ষান্ত হয় না আজকাল মিডিয়া মানে কোটি কোটি টাকা বাণিজ্যের হাতছানি তাছাড়া একটি দেশের পরিচিতিও তুলে ধরা যায় মিডিয়ার মাধ্যমে । এতে করে বাণিজ্য যেমন বৃদ্ধি পাবে ঠিক তেমনি বাংলাদেশের আর্থ সামাজিক উন্নয়নেও বিরাট ভুমিকা রাখতে সক্ষম হবে । তাছাড়া এখন আর দরজা বন্ধ করে আবদ্ধ থাকার দিন নেই এখন সময় সবার সাথে পরিচিত হওয়ার ,সময় এখন আরও জানার । আশা করি সরকার সব দিক বিচার বিবেচনাপূর্বক করনীয় ঠিক করবে ।