ইসলামে যুদ্ধাপরাধ কী? ও যুদ্ধাপরাধী কারা?

শান্তির ধর্ম ইসলামে যুদ্ধের মত সহিংস অবস্থানেও মানবতার এক অতুলনীয় দীক্ষা দিয়েছে। অযথা যুদ্ধ ‎ইসলামে কাম্য নয়। তাই ইসলামের যত বড় শত্রুই হোক না কেন তাকে প্রথমে সমঝোতার জন্য আহবান ‎করা হবে। কিন্তু তারপরও যদি কোন কারণে যুদ্ধ বেঁধে যায়, তবে চোরাগুপ্তা হামলা ইসলাম অনুমোদন ‎করেনা। বরং শত্রুকে জানিয়ে দিবে যে, আমরা তোমাদের উপর আক্রমণ… Read more »

সারা পৃথিবীতে একই সময়ে ঈদ: দাবী ও বাস্তবতা

ভুমিকা চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল ইসলামের অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিধানাবলী। রোজা, ঈদ, কুরবানীসহ হজ্বের মত ইসলামের মৌলিক বিষয়াবলী। সুতরাং চাঁদ দেখার ক্ষেত্রে পরিস্কার ধারণা না থাকলে এই সকল বিষয়ে সমস্যা হতে বাধ্য। সুতরাং প্রতিটি মুসলমানের এ বিষয়ে পরিচ্ছন্ন জ্ঞান থাকা আবশ্যক। ইসলাম একটি সার্বজনীন ধর্ম। গোটা পৃথিবীর সকল অঞ্চলের বিগত-আগত ও অনাগত সকল মানুষের জন্য কার্যকরী… Read more »

ইভ টিজিং না লিলিথ টিজিং?‎

ইভ মানে কী? টিজ শব্দটা ইংরেজী, যার অর্থ হল-বিরক্ত করা, জ্বালাতন করা, নির্যাতন করা ইত্যাদি। কিন্তু ‎ইভ মানে কী? এটা ইংরেজী শব্দ না, এটা হিব্রু শব্দ। যা মূলত নেয়া হয়েছে খৃষ্টানদের বাইবেল ও ‎ইহুদিদের পুরাণে বর্ণিত আদি মানব সৃষ্টির গল্প থেকে। যতটুকু জানা যায় আল্লাহ প্রথমে এডামকে (আদম আ:) সৃষ্টি করার পর তার জন্য একজন… Read more »

‎“ফতোয়া” অপপ্রচারের শিকার এক মজলুম ইসলামী শব্দ

ফতোয়া কী?‎ ফতোয়া হল একটি আরবী শব্দ। যা কুরআন সুন্নাহ তথা ইসলামী শরীয়তের একটি মর্যাদাপূর্ণ পরিভাষা। ‎দ্বীন-ধর্ম সম্পর্কে জিজ্ঞাসার পর একজন দ্বীন ইসলাম সম্পর্কে প্রাজ্ঞ মুফতী কুরআন-হাদীস ও ইসলামী আইন ‎শাস্ত্র অনুযায়ী যেই সমাধান দেন তাই “ফতোয়া”। ইসলামী বিধান বর্ণনাকারীকে বলে “মুফতী” আর যে ‎সকল প্রতিষ্ঠান এই দায়িত্ব পালন করেন তাকে বলে “দারুল ইফতা”। ফতোয়ার… Read more »