নারীর কোরান – ৭ (লাহুন্না ও সুবর্ণবিধি)

৭.১। কোরানে উল্লেখিত ২.২২৮ আয়াতের ‘লাহুন্না মিসলুল্লাযি’ নীতিবচনটি মূলত সুবর্ণবিধির একটি বিশেষ প্রকাশ, যা আবার কোরানের অন্য নীতিগুলোর সাথে মিলে একটি ব্যাপক ও পরিপূর্ণ নীতি গঠন করতে পারে। আমরা গসপেলে যীশু প্রমুখাত পেয়েছি: ‘অন্যের সাথে সেরূপ আচরণ কর, যেরূপ আচরণ তুমি অন্যের নিকট থেকে প্রত্যাশা করে থাক’। কিন্তু এখানে একটি অচলাবস্থা তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে। যেখানে… Read more »

ক্যাটাগরীঃ ধর্ম বিষয়ক

নারীর কোরান – ৬ (দারাজাত)

৬.১। কোরানের দ্বিতীয় সুরা বাকারা’র ২২৮ আয়াতের একটি বাক্য সার্বিকভাবে পুরুষের নিকট নারীর অধিকার নির্ধারণ করেছে। প্রাথমিক ধারণার উদ্দেশ্যে, এই আয়াতাংশের অনুবাদ দেয়া গেল: And due to them is equitable to what is expected of them, according to what is reasonable. And for men is the precedence over what is expected of them। এই অনুবাদ… Read more »

ক্যাটাগরীঃ ধর্ম বিষয়ক

নারীর কোরান – ৫ (নারী)

৫.১। আরবি ভাষায় লিঙ্গ মাত্র দুটি: পুংলিঙ্গ ও স্ত্রীলিঙ্গ। মানুষের উৎপত্তি এবং জগতে মানুষের অবস্থান ও মানুষের প্রকৃতি নিয়ে কথাগুলোতে শব্দের লিঙ্গে নানা প্রকার শিফটিং আমরা দেখতে পাই। কোথাও ‘সঙ্গী’ পুরুষ-বাচক ও কোথাও স্ত্রী-বাচক। আল্লাহ যখন ‘হে মানবজাতি’ বা ‘হে বিশ্বাসীরা’ বলে সম্বোধন করেন বা ‘তোমরা’ সর্বনাম ব্যবহার করেন, তখন তার মধ্যে নারী ও পুরুষ… Read more »

ক্যাটাগরীঃ ধর্ম বিষয়ক

নারীর কোরান – ৪ (আদম)

৪.১। সাধারণত ধারণা করা হয়ে থাকে যে, আল্লাহ প্রথমে পুরুষ সৃষ্টি করেছেন, তার থেকে প্রথম নারী এবং পরে এই জোড়া থেকে সমস্ত নরনারী। ‘আদম-হাওয়া’র এই ব্যাখ্যা আমরা শৈশবেই জেনে থাকি। কিন্তু লক্ষণীয় বিষয়টি হচ্ছে এই যে, কোরানের কয়েক স্থানে ‘আদম’ নামটির উল্লেখ পাওয়া গেলেও কোথাও ‘ইভ’ বা ‘হাওয়া’ নামটি নেই। তার স্থানে বলা হয়েছে ‘আদমের… Read more »

ক্যাটাগরীঃ ধর্ম বিষয়ক ১৮

নারীর কোরান – ৩ (নাফসিন ওয়াহিদাতিন)

৩.১। প্রতীয়মান এই বস্তুর জগতে কিভাবে মানুষ এসেছে সেই প্রক্রিয়াটির কোন বিস্তারিত বিবরণ আমরা কোরানে পাই না। আমরা যা পাই তা হলো কনসেপচুয়াল ডেসক্রিপশন। কিন্তু এই ডেসক্রিপশন অনুসারে বাস্তবে মানুষ কিভাবে এসেছে বা এই ডেসক্রিপশন কিভাবে বাস্তবায়িত হয়েছে তা বিজ্ঞানীদের গবেষণার বিষয়। অথবা বিজ্ঞানীরা যা জানতে পারবেন তার সাথে এই ডেসক্রিপশন মেলে কিনা তা আমাদের… Read more »

ক্যাটাগরীঃ ধর্ম বিষয়ক

নারীর কোরান – ২ (পরিবার)

২.১। এই পর্বে আমরা পরিবারের সম্ভাব্য বিকল্প সব কাঠামো নিয়ে আলোচনা করবো। পরিবারকে যদি একটি সংগঠন হতে হয় তবে তা হয় মাতা শাসিত হবে, নয়তো হবে পিতা শাসিত। কারণ কোন সংগঠনে একজনকে বিরোধ নিষ্পত্তিকারীর ভূমিকায় থাকতে হয়। আমরা উভয় ক্ষেত্রে পরিবারের প্রাকৃতিক রূপ কী হতে পারে তা নির্ধারণের চেষ্টা করবো। প্রাকৃতিক সংগঠন বলতে আমরা বুঝবো… Read more »

ক্যাটাগরীঃ ধর্ম বিষয়ক

নারীর কোরান – ১ (ভূমিকা)

১.১। আল্লাহ কি কোরানের মাধ্যমে পুরুষদের উপর একটি পুরুষতান্ত্রিক বা পুরুষশাসিত সমাজ প্রতিষ্ঠা করার ও তা রক্ষা করে চলার দায়িত্ব ও কর্তব্য আরোপ করেছেন? আমরা যারা কোরান অথবা কোরানের কোন অনুবাদ/ভাষ্য পড়েছি তাদের নিকট প্রশ্নটি উত্থাপন করা গেলে যে উত্তর পাওয়া যাবে বলে আমি আশা করছি তার ভিত্তিতে আমরা সম্ভবত প্রধানত চারটি ভাগে বিভক্ত হবো—… Read more »

ক্যাটাগরীঃ ধর্ম বিষয়ক ১৩