জীবনে প্রথম ভারত ভ্রমণ

তাজমহল দেখে ফেরার পরদিন আমরা আবারও টিকিট কেটে বাসেই চড়লাম। এবার জয়পুর দেখার সাধ। নেমেই মুগ্ধ দুচোখ আমাদের। মনের অজান্তেই যেন বা “বাহ” বলেছি দুজনেই। জয়পুরের সবই গোলাপি রঙ। দোকানপাট, বাড়ি, মিউজিয়ম সব গোলাপি রঙে সাজানো ছবির মতোন। তাই পিংকসিটি বলতে জয়পুর। এমন শহর দেখিনি আর। অনেক ঘুরলাম আমরা সারাদিন একটা ট্যাক্সি ভাড়ায় নিয়ে। মুঘল… Read more »

ক্যাটাগরীঃ ভ্রমণ

জীবনে প্রথম তাজমহল দেখা দু’জনে

ক্যাপশন: যমুনাতীরে  সে  এক  তাজমহল ! ভ্রমণ পর্ব -১। *********** তখন বয়স আমার চৌত্রিশের কোঠায়। স্বামী হঠাত পাসপোর্ট করিয়ে দিলেন আমার। প্লান ভারত ভ্রমণের। জীবনে প্রথম পাসপোর্টটি পাওয়া আমার। অভূত সে এক রোমাঞ্চিত বিষয় বটে। তখন তিন ছেলেমেয়েই ইস্কুল পড়ুয়া। ভিসা পাওয়া হলো। ছেলেমেয়ের পরীক্ষার কারণে ওদেরকে ওদের চাচা-ফুপুর কাছে রেখেই আমাদের যাওয়া ঠিক করতে… Read more »

ক্ষণজন্মা খনার কথা …

বঙ্গদেশে সে এক খনা নামের বিদূষী কন্যা জন্মেছিলেন। দারুণ মেধাবী কন্যা। আসল নামটি খনার – “লীলাবতী”। যে মাত্র সাত-আট বছর বয়সেই নিজের মেধাবী বচনে তাক লাগিয়ে দিতো। খুবই আশ্চর্যজনকভাবে খনা নিজের শ্লোক বানাতো মুখেমুখে। এবঙ সেসব ফলেও যেতো। তখন কন্যাদের কদর ছিলোনা কেবল অন্দরমহল ছাড়া। তাদের শিক্ষা দীক্ষার সুযোগ ছিলোনা। প্রতাপশালী জমিদারের কন্যা হলেও ছেলের… Read more »

ক্যাটাগরীঃ নাগরিক মত-অমত

জগতের জীবিত বাবা, প্রয়াত বাবা থাকুন সদানন্দে

দিবস জানতে চাইনা। তবু জগতে দিবসের কদর খুব। দিবস আসে। দিবস যায়। ডামাডোলের মাঝে দিবস পালনের স্মরণমুখরতা দেখে স্মরণ কালের জীবনভর্তি স্মৃতিমালা হৃদয়ে কড়া নেড়েই বলে – “আমার স্মরণে দিবস লাগে তোমার!” অধোবদন আমার চোখ সজল হয়। হৃদয় জুড়ে বাবার মুখ, মায়ের মুখ আমারে রক্তজলের ভাষায় সত্য লিখতে এখানে বসিয়ে দেয়। কী লিখি? যে বাবা-মা… Read more »

ক্যাটাগরীঃ দিনলিপি

অন্তর আজও খুঁজে বেড়ায় নির্জনতার ঠিকানা

আজকাল হয়তো প্রৌঢ়ত্বে দাঁড়িয়ে ক্লান্তচিত্তে ঝিমুনি ধরে জেঁকেই। জানি, কে আর অনন্ত বাঁচতে পায় জগতে ! তা সে যতই চায় বাঁচবে অনন্তকাল – যতই বিজ্ঞান আবিষ্কারের তাক লাগানো আইডিয়ায় অগ্রসরমানতা নিয়ে নতুন সব অন্বেষণের চমকানো ঝলকে উদ্ভাসিত – ততই অজানিত অসুখ / জরা হাজির এক একটি নতুন নামকরণের হালখাতায় ! আমার লাগে এমন যখন ঝিমুনি… Read more »

ক্যাটাগরীঃ দিনলিপি

জৈষ্ঠ্য শেষের জলধারা…আহাহা!

জৈষ্ঠ্য শেষের দাবদাহে যখন অতিষ্ঠ হৃদয় তখনই হঠাৎ রূপালি জলের ধারা নামলে কার না হৃদয় নাচে? সে যেন কবিতা প্রহর হতে নেমেছে খরাতপ্ত ধরায়। যেন ঢাকার নাগরিক জীবনে আচমকা খানিক স্বস্তির কবিতাময় কিছু সময়, জলেভেজা নরোম সেচনের মতোন খরাক্লান্ত হৃদয় ভিজিয়ে যাওয়া। কারও-কারও হৃদয় যেন দারুণ রোমাঞ্চিত যমুনা হলো। রাজধানীর যান্ত্রিক ধাতব সার্বক্ষণিক আওয়াজের জের… Read more »

ক্যাটাগরীঃ দিনলিপি

ফুলের গন্ধে জানলা ভাসে …

অসুখ আমি পরোয়া করতে চাইনা বলে মাঝেমাঝেই একরকম গা ঝাড়া দিয়ে বেরিয়ে পড়ি বাড়ির ধারেকাছে কোনও কফিশপ / বাজারে। যদি কোনও ফুলঅলা দেখি তো কিনি ব্যাগে যা আছে তারই হতে যা জোটে সেই টাকায়। একটু হয়তো বেশি মূল্যেই কিনি বেলী / গোলাপ। বাড়ি এনেই যত্নে সাজাই নিজহাতে। হাড়ের ভোঁতা বেদনা, সার্বক্ষণিক ঝিমানি, ক্লান্তি ফুলেল গন্ধে… Read more »

ক্যাটাগরীঃ দিনলিপি ১৬

সুস্বাগতম মোদী-জী, বাংলাদেশ সফর মাইলফলক হোক

এইমাত্র ভারত-এর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বাংলাদেশে প্রথমবার সফরে এলেন। এবঙ এই সফরে তিনি ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফলপ্রসু আলোচনায় দুই পড়শি দেশের জরুরী সমস্যার সমাধানের ইতিবাচক একটি চুক্তিতে দুজনে স্বাক্ষর করতে পারেন বলেই খবরে প্রকাশ। এই খবরে আশাবাদী আমরা। কারণ, নরেন্দ্র মোদী-র ক্ষমতায় আরোহনের পরপর এখন অব্দি অনেক ইতিবাচক উদযোগের ফলাফল আমরা মিডিয়ার বরাতে… Read more »

কে জানিতো তেমন জ্বলবেনা সে আর ঘরে!

তখন সন্ধের সনেই অামাদের আশপাশের ঘরে-ঘরে জ্বলতো হ্যারিকেন / হ্যাজাক / চেরাগ বাতি। তখন কূপির সলতে / লন্ঠনের ছমছমানো কাচগন্ধ জ্বলতো সন্ধে ঘনিয়ে এলে সবার ঘরে। একটু সামর্থঅলাদের হ্যাজাকবাতির জোরালো অালোয় জ্বলতো ঘরদোর। বলছি স্বাধীনতার অনেক অাগের দিনগুলির কথা। ষাটের দশকে আমার দাদীমা অনেক যত্নে কূপি ও লন্ঠন পরিষ্কারের কাজ নিজেই করতেন। বিকেল হলে যতন… Read more »