ক্যাটেগরিঃ কৃষি

 
হেমন্তের নবান্ন এখন বসন্তেও

না প্রকৃতি এখানে পরাজিত নয়। সে ভাবনারও কোন অবকাশ নেই। তবে প্রকৃতির বিবর্তন বলে একটা ধারা আছে যেটা অব্যাহত…..। তাই মানুষের মেধা এবং প্রকৃতি দুই ই মিলে বাংলার কৃষকের ঘরের হেমন্তের নবান্ন নিয়ে এসছে বসন্তেও। আজ বিকেলে হাটতে গিয়েছিলাম বগুড়া শহর ছেড়ে তার পাশেই নাটাই পাড়া গ্রামে। গ্রামে হাটবার লোভটা আমি সামলাতে পারি না কখনই। তাই শুক্র-শনি ছুটির দিনে আমি গ্রামের দিকে হাটতে যাই।

গরমের ধান চাষ হয়েছে বাংলাদেশের উত্তর বঙ্গের জেলা গুলোতে। দক্ষিণ বঙ্গেও যে হয় না তা নয়, তবে তেমন উল্লেখযোগ্য নয়।যাই হোক বগুড়ায় গরমের ধানের চাষের কথা বলছিলাম।চাষী যখন জমি চাষ করছে তখন থেকেই দেখছি। এখন সেই জমিতে সোনালী ধানের মনোমুগ্ধকর হাসি দেখে মুগ্ধ হচ্ছে সকলেই। কোথাও কোথাও কাস্তে হাতে নতুন ধান কাটতে নেমেছে চাষী। এ অঞ্চলে তাই এখন চলছে হেমন্তের নবান্ন উৎসব বসন্তে। এ নিছক খুশী ছাড়া আর কিছুই নয়। এক দিকে চাষীর ঘরে নতুন ধানের ঘ্রাণ অন্য দিকে দেশের আর্থিক উন্নয়ন। সব মিলিয়ে বসন্তের নবান্ন উৎসব কিন্তু বিশেষ এক অনভূতিময় অনুভূতি। এখানে হেমন্তের নবান্ন উৎসবের মত হাড় ঠক ঠক করা শীতের কামড় নেই। এখানে শরীর ঘামান গরম এবং উচু আকাশের প্রখর রদ্দুর নিয়ে এই বসন্তের নবান্ন উৎসব।

পরিশেষে বলব, আসুন আমরা এই বসন্তের নবান্ন উৎসবকেও জাতীয় ভাবে উদযাপন করি। বাংলার প্রতি ঘরে ঘরে হেমন্তের নবান্ন উৎসবরে পাশাপাশি বসন্তের নবান্ন উৎসবকেও উদযাপন করি। বসন্ত বরনের সাথে সাথে হোক বসন্তের নবান্ন উৎসবকেও বরণ।যা কিনা হয়ে উঠবে আমাদের বাঙ্গালী সংকৃতির অঙ্গ একান্ত বাঙ্গালীয়ানায়।

08.05.2015
dipeshroy21@gmail.com